খেলাক্রিকেট

এবারও আইপিএলে অভিষেক হলো না অর্জুনের, মুখ খুললেন শচীন টেন্ডুলকার

নিজের ইচ্ছায় ও ক্রিকেটকে পেশা হিসেবে নিয়েছে। আমি ওকে বলেই দিয়েছি, এই রাস্তায় ওর জন্য আসতে চলা চ্যালেঞ্জ অত্যন্ত ভয়ঙ্কর জনক। সেসব নিজেকেই অতিক্রম করতে হবে।

×
Advertisement

বর্তমানে আইপিএলের চূড়ান্ত পর্যায়ের খেলা চলছে। গতকাল চলতি আইপিএলের প্রথম দল হিসেবে ফাইনাল খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছেন গুজরাট টাইটান্স। আজ কোয়ালিফাই ম্যাচ শক্তিশালী লখনউ সুপার জায়েন্টসের বিপক্ষে মাঠে নামবে রয়েল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালোর। আজকের ম্যাচের বিজয়ী দল রাজস্থানের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় কোয়ালিফাই ম্যাচ খেলবে। তবে চলতি আইপিএলে সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি ক্রিকেটপ্রেমীদের হতাশা করেছে সেটি হল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের পারফর্মেন্স। আইপিএলের পাঁচবার শিরোপাজয়ী দলটি চলতি আইপিএলে শুধুমাত্র হতাশাজনক রেকর্ড গড়তে ব্যস্ত ছিল। গ্রুপ পর্যায়ের অর্ধেক ম্যাচ শেষ হওয়ার আগেই প্লে অফের লড়াই থেকে ছিটকে যায় মুম্বাই।

Advertisement

তবে এতকিছুর মধ্যেও বড় প্রশ্ন উঠে এসেছে ক্রিকেটের ঈশ্বর শচীন টেন্ডুলকারের পুত্র অর্জুন টেন্ডুলকারকে নিয়ে। এই নিয়ে টানা দুই বছর ড্রেসিং রুমে বসে সময় কাটালেন তিনি। কিন্তু আইপিএলে অভিষেক এখনো দুঃস্বপ্ন হিসেবে রয়েছে অর্জুন টেন্ডুলকারের কাছে। গ্রুপ পর্যায়ে নিজেদের শেষ ম্যাচে দিল্লির বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ক্রিকেটপ্রেমীরা মনে করেছিলেন, প্লে অফের লড়াই থেকে ছিটকে যাওয়া মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স হয়তো শেষ ম্যাচে সুযোগ দেবেন অর্জুন টেন্ডুলকারকে। তবে সে আশা গুড়ে বালি। শচীন পুত্রকে ছাড়াই আইপিএলের পুরো আসর শেষ করেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

তবে এই বিষয়ে এবার বড় প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন স্বয়ং শচীন টেন্ডুলকার। এক আলোচনা সভায় অর্জুন টেন্ডুলকারের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে শচীন টেন্ডুলকার বলেন,”এই বিষয়টা নিয়ে আমি মোটেও চিন্তিত নই। নিজের ইচ্ছায় ও ক্রিকেটকে পেশা হিসেবে নিয়েছে। আমি ওকে বলেই দিয়েছি, এই রাস্তায় ওর জন্য আসতে চলা চ্যালেঞ্জ অত্যন্ত ভয়ঙ্কর জনক। সেসব নিজেকেই অতিক্রম করতে হবে। তাছাড়া দল নির্বাচনে আমি কখনো হস্তক্ষেপ করি না। টিম ম্যানেজমেন্টের সকল সদস্যদের হস্তক্ষেপে সেরা একাদশ বেছে নেওয়া হয়। নিজেকে প্রমাণ করতে পারলে অবশ্যই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জার্সিতে আইপিএল খেলার সুযোগ হবে অর্জুনের।”

Advertisement

Related Articles

Back to top button