×
টেক বার্তা

লঞ্চ হল Redmi Note 11 Pro সিরিজের নয়া দুই স্মার্টফোন, জেনে নিন Top 11 ফিচার

৯ মার্চ কোম্পানি তাদের নতুন ফোন লঞ্চ করেছে যা হল Redmi Note 11 Pro এবং Redmi Note 11 Pro+ 5G

Advertisement

বর্তমান যুগে প্রযুক্তির সাথে পাল্লা দিয়ে চলতে গিয়ে প্রত্যেকের কাছে স্মার্টফোন অত্যাবশ্যকীয় হয়ে পড়েছে। আট থেকে আশি সকলেই আজকাল স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকেন। মূল্যবৃদ্ধির বাজারে সকলেই চায় একটি আধুনিক প্রযুক্তিতে পরিপূর্ণ সস্তার স্মার্টফোন কিনতে। আর সাধ্যের মধ্যে স্মার্টফোনের কথা বললেই প্রথমেই সকলের মাথায় আসে জাওমির নাম। ভারতের বাজারে এই কোম্পানির সাব ব্র্যান্ড রেডমির জনপ্রিয়তা ব্যাপক। সম্প্রতি জানা গিয়েছে, এই কোম্পানি ভারতের বাজারে তাদের রেডমী নোট ১১ সিরিজের স্মার্টফোনগুলিকে প্রসারিত করতে চলেছে। গত ৯ মার্চ কোম্পানি তাদের নতুন ফোন লঞ্চ করেছে যা হল Redmi Note 11 Pro এবং Redmi Note 11 Pro+ 5G।

Advertisement

জানা গিয়েছে, নতুন লঞ্চ করা Redmi Note 11 Pro স্মার্টফোনটিতে মিডিয়াটেক হেলিও G96 প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে এবং অন্যদিকে Redmi Note 11 Pro+ 5G স্মার্টফোনটিতে সুপারফাস্ট কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন 695 প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। প্রসেসরের পাশাপাশি এই দুই মোবাইলে অনেক শক্তিশালী ব্যাটারি এবং স্টোরেজের ব্যবস্থা রয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা, এই নতুন স্মার্টফোনগুলি ২০ হাজার টাকা মূল্যের কমে ভারতের বাজারে লঞ্চ করতে চলেছে। আসুন আজকের এই প্রতিবেদনে জেনে নিন কেন আপনি নিজের স্মার্টফোন হিসেবে রেডমির লঞ্চ করা নতুন দুই স্মার্টফোনকে বেছে নেবেন।

১) ডিসপ্লে:
Redmi Note 11 Pro এবং Redmi Note 11 Pro+ 5G স্মার্টফোনগুলোতে ৬.৬৭ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস অ্যামোলেড ডট ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। এই নতুন ডিসপ্লেতে প্রত্যেকটি ছোটখাটো ডিটেইলস ভালোভাবে চোখে পড়বে এবং ডিসপ্লে কালার বেশ উজ্জ্বল হবে।

Advertisement

২) রিফ্রেশ রেট:
লঞ্চ করা নতুন দুই স্মার্টফোনের স্ক্রীন প্রতি সেকেন্ডে ১২০ বার রিফ্রেশ হতে পারে। এইজন্য স্মার্টফোন ব্যবহার করা বেশ মসৃণ এবং সুপারফাস্ট হবে। স্মার্টফোনে ইনপুট ল্যাগ অ্যানিমেশন ল্যাগ চোখে পড়বে না।

৩) স্ক্রিন ব্রাইটনেস:
এই দুই স্মার্টফোনের স্ক্রীন ব্রাইটনেস ১২০০ নিটস। এই ফিচারের জন্য সূর্যালোকের মধ্যেও স্ক্রিনের লেখা স্পষ্ট ভাবে পড়া যাবে।

৪) ক্যামেরা:
Redmi Note 11 Pro স্মার্টফোনের রিয়ার ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে কোয়াড সেটাপ যাতে প্রাইমারি ক্যামেরা হিসেবে ১০৮ মেগাপিক্সেলের লেন্স ব্যবহার করা হয়েছে যাতে রয়েছে হাই রেসোলিউশন ইমেজ সেনসর। অন্যদিকে, Redmi Note 11 Pro+ স্মার্টফোনটিতে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে যাতে প্রাইমারি সেনসর ১০৮ মেগাপিক্সেলের। এই স্মার্টফোনের ক্যামেরার সাহায্যে ক্রিস্টাল ক্লিয়ার ছবি তোলা সম্ভব।

৫) ইমেজ সেন্সর টেকনোলজি:
মোবাইল ফটোগ্রাফি আজকালকার দিনে বেশ একটি ট্রেন্ডিং ব্যাপার। স্মার্টফোনের সাহায্যে অত্যন্ত সুন্দর ছবি তোলার জন্য রেডমি তাদের নতুন দুই স্মার্টফোনে বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা আল্ট্রা হাই রেসোলিউশন HM2 ইমেজ সেন্সর ব্যবহার করেছে যাতে 9 ইন 1 পিক্সেল বাইন্ডিং টেকনোলজি দেখা যায়। এই জন্য অত্যন্ত কম আলোতেও স্পষ্ট ছবি তোলা যাবে।

৬) ব্যাটারি:
Redmi Note 11 Pro সিরিজের স্মার্টফোনগুলিতে শক্তিশালী ৫০০০ mAh এর ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। একবার চার্জ করলে প্রায় সারাদিন কোনো বাধা ছাড়াই আপনি এই ফোন ব্যবহার করতে পারবেন। শক্তিশালী ব্যাটারি দীর্ঘক্ষন অনলাইন সার্ফিং, মুভি স্ট্রিমিং, গান শোনা বা কল টাইম দিতে পারবে।

৭) ফাস্ট চার্জিং:
Redmi Note 11 Pro সিরিজের স্মার্টফোনগুলিতে ৬৭ ওয়াটের টার্বো সনিক চার্জ ৩.০ ব্যবহার করা হয়েছে। মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যে আপনি ফোন ফুল চার্জ করে নিতে পারবেন।

৮) কুলিং টেকনোলজি:
অনেক স্মার্টফোন দীর্ঘক্ষন ব্যবহার করলেই গরম হয়ে যাওয়ার সমস্যা রাখা যায়। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য Redmi Note 11 Pro+ 5G স্মার্টফোনে নতুন প্রযুক্তির লিকুইড কুলিং টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে। এই টেকনোলজির জন্য অত্যন্ত কম সময়ের মধ্যে আপনার ফোন ঠান্ডা হয়ে যেতে পারবে। আর এর ফলে ফোন হ্যাং, ফ্রিজ স্ক্রিন ইত্যাদি সমস্যা দেখা যাবে না।

৯) 5G টেকনোলজি:
Redmi Note 11 Pro+ 5G স্মার্টফোনটিতে অ্যাডভান্স 5G টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে যার জন্য এটি অন্যান্য 5G স্মার্টফোনের তুলনায় অনেক বেশি ব্যান্ড সাপোর্ট করবে।

১০) চিপসেট:
Redmi Note 11 Pro স্মার্টফোনটিতে মিডিয়াটেক হেলিও G96 প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে এবং অন্যদিকে Redmi Note 11 Pro+ 5G স্মার্টফোনটিতে সুপারফাস্ট কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন 695 প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে।

১১) স্মার্টফোনের দাম:
এবার আসা যাক, সবচেয়ে প্রধান জায়গায়। Redmi Note 11 Pro এবং Redmi Note 11 Pro+ 5G দুই স্মার্টফোন ভারতের বাজারে ২০ হাজারের কম মূল্যে পাওয়া যাবে বলে কোম্পানি জানিয়েছে। এত অত্যাধুনিক ফিচার এবং পারফরম্যান্স চিপসেটের সঙ্গে বাজেট মূল্যের এই স্মার্টফোন আশা করা যায় ভারতের বাজারে সাড়া ফেলে দেবে।

Related Articles

Back to top button