টেক বার্তানিউজ

Bike Mileage: বাইকের মাইলেজ বাড়াতে যা করবেন! মেনে চলুন এই ৬টি টিপস

×
Advertisement

একজন বাইকপ্রেমীদের কাছে তার বাইক সদ্যজাত শিশুর মতোই। তাই তো সন্তানের মতো সারাক্ষণ যত্ন আত্তিতেই রাখেন নিজের শখের মোটরবাইকটিকে। একটু সামান্য অবহেলা পেলেই যেন বাইকটি ম্ন খারাপ করে বসে থাকে এক কোণায়। আসলেই কিন্তু তাই সত্যি সত্যি সে একটু অবহেলা এবং সঠিকভাবে নিয়মিত পরিচর্চা না পায় তাহলে বাইকের নানান সমস্যা দেখা দিতে পারে

Advertisement

মাঝে মাঝেই শখের মোটরবাইক ভালো মাইলেজ দিচ্ছে না এরকম অভিযোগ এসেছে! এদিকে দিন যত যাচ্ছে পেট্রোলের দাম আকাশ ছোঁয়া। এদিকে চিন্তায় কপালের ভাঁজও দীর্ঘ হচ্ছে আপনার। এক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখলে বাইকের মাইলেজ বাড়াতে পারবেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক উপায়গুলো-

১.প্রথমেই আপনি নিজের বাইকের কিছু সার্ভিসিং করান। তা হলে প্রয়োজনীয় বেশ কিছু জায়গায় লুব্রিকেশন হয়। তার জেরে যন্ত্রাংশ ঠিকঠাক কাজ করে এবং এই কাজটি নিয়মিত করলে বাইকের মাইলেজ ঠিক থাকে। বাইকের ইঞ্জিনের রক্ষণাবেক্ষণ সঠিকভাবে না করলে যার প্রভাব মাইলেজে পড়তে বাধ্য।  সবসময় গ্যারেজে গিয়ে নিজের বাইক পরিষ্কার করে নিতে হবে এমন নয়। নিজেই পরিষ্কার করুন নিজের

Advertisement

২.মোটরবাইকের টায়ার প্রেসার ঠিকঠাক রাখুন। প্রতি ১৫ দিন অন্তর টায়ারের এয়ার প্রেসার মাপিয়ে নিন। আর বাইকের টায়ারের প্রেসার কম থাকলে মাইলেজ ড্রপ হতে পারে।

২. বাইকের এয়ার ফিল্টারটি সময় অনুযায়ী পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা উচিত। কারণ বাতাসের দূষণ ও ধূলিকণা সহজেই এর মধ্যে ময়লা জমিয়ে দেয়। আর এর জেরে বাইকের ইঞ্জিনের কর্মক্ষমতাকে প্রভাবিত করে।

৩.আপনার বাইকের চেইন, ইঞ্জিন ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানে তেল দেওয়ার ওপর বিশেষ যত্ন নিন। পর্যাপ্ত পরিমাণে তেল দিলে বাইকের ইঞ্জিন আর চেইন ইত্যাদি ভালোভাবে কাজ করে। এর ফলে বাইক নিজের পারফরম্যান্সও ভালো দেয়।

৪. গ্রাহক যদি নিজের বাইকে অতিরিক্ত লোড রাখেন তাহলে বাইকের ইঞ্জিন প্রভাবিত হবে। এই প্রভাব সরাসরি এর পারফরম্যান্সে ভালো প্রভাব ফেলবে। তাই এই কাজ করবেন না। সবসময় মোটরসাইকেল এর লোড ক্ষমতা অনুযায়ী করা উচিত। তাই সঠিক গিয়ারে মোটরবাইক চালানো জরুরি

৫. বাইকের চেইন নিয়মিত পরিষ্কার করুন। কেননা চেইনের উপর বাইকের মাইলেজ বাড়া কমা নির্ভর করে। চেইন বেশি ঢিলেঢালা হয়ে আছে কি না তা খেয়াল রাখুন। আর বাইকে ক্লাচ ও ব্রেক লিভার অল্প ব্যবহার করুন। কেবল প্রয়োজনে এই দুই জিনিস ব্যবহার করুন। এগুলি বার বার ব্যবহারের কারণে বাইকের মাইলেজে প্রভাব পড়ে। এগুলি কম ব্যবহার করলে আপনি আপনার বাইকের মাইলেজ বাড়াতে পারবেন। 

৬ কখনো আপনি রাফ ড্রাইভিং করবেন না। সঠিক গিয়ারে মোটরবাইক চালানো জরুরি। কারণ আপনি কম গিয়ারে থাকাকালীন বেশি স্পিড তুললে মোটরবাইক মাইলেজ কম দেবে। বাইকের গতি অনুযায়ী সঠিক গিয়ার নির্বাচন করুন। তাহলেই দেখবেন বাইকের মাইলেজ অনেকটা বেড়ে গেছে।

 

Related Articles

Back to top button