কলকাতানিউজরাজ্য

গণতন্ত্র ও সংবিধানকে দিনের আলোয় হত্যা করছে মমতার সরকার, বিস্ফোরক তেজস্বী সূর্য

Advertisement

কলকাতা: বৃহস্পতিবার বিজেপির নবান্ন অভিযান ঘিরে কার্যত গোটা শহর রণক্ষেত্র চেহারা নিয়েছে। গতকাল, বুধবার সন্ধ্যা থেকেই এই নিয়ে সরগরম রাজনৈতিক মহল। এই অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য যুব মোর্চার নবান্ন অভিযানে সামিল হতে বুধবার রাতেই কলকাতায় এসেছেন সংগঠনের সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য। আর কলকাতাতে পা রেখেই একের পর এক বিস্ফোরণ ঘটাতে চান তিনি প্রথমে নবান্ন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে বিজেপির যুব নেতা বলেছেন, ‘মমতা দিদি ভয় পেয়েছেন।’ আর এবার যা বললেন তা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

তেজস্বী সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, ‘হাজারের বেশি কর্মী জখম হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে প্রায় পাচশো জনকে। গতকাল রাত থেকে শহরের বিভিন্ন জায়গায় বাস আটকে দেওয়া হয়। এটাকে কি গণতন্ত্র বলে। আমার তো মনে হয় না। কেন? সাধারণ মানুষের কি রাজনৈতিক বিক্ষোভের অধিকার নেই? হাওড়া ব্রিজ দিনভর আজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় লাঠিচার্জ করা হয়েছে। কোন সত্যকে চাপা দিতে বাংলার সরকার এমন কাজ করছে। সারা দেশে আজ সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত সরকার হল বাংলায়। সিন্ডিকেট ও কাটমানির সরকার চলছে এখানে। দিন দিন বেকারত্ব বেড়েই চলেছে। একটা আতঙ্ক, দুর্নীতিগ্রস্ত ও কর্মনাশা সরকারের বিরুদ্ধে যারাই রুখে দাঁড়াবে, তাদেরকেই রাজনৈতিক খুন করা হয় বাংলায়। আজ বাংলার রাজনৈতিক ইতিহাসে ‘কালো দিন’। দিনের আলোয় গণতন্ত্র ও সংবিধানকে হত্যা করছে মমতার সরকার।’ এভাবেই কার্যত বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি।

প্রসঙ্গত এর আগেও, বুধবার রাতে কলকাতা বিমানবন্দরে পা রেখে যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি বলেন, ”মমতা দিদি ভয় পেয়েছেন। এ ডর অচ্ছা হ্যায়।’ তারপর সাংবাদিক বৈঠকে তিনি আরও বলেন, ‘বাংলায় অরাজকতা চলছে। বাংলার যুবকদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করতে প্রস্তুত গোটা দেশ। আমি আশ্বাস দিচ্ছি, এই সরকারকে উৎখাত করেই ছাড়ব।’সুতরাং, সব মিলিয়ে নবান্ন অভিযানে এসে তেজস্বী সূর্যর এমন মন্তব্য যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

Tags

Related Articles

Back to top button