টলিউডবাংলা সিরিয়ালবিনোদন

Rithabhari-Mimi: একইদিনে দুই নায়িকার ছবি মুক্তি পেতে চলেছে, মিমির উদ্দেশে আবেগঘন বার্তা ঋতাভরীর

ঋতাভরী চক্রবর্তী আর মিমি চক্রবর্তী! দুজনেই বর্তমানে টলিউডের প্রথম সারির নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম। দুজনেরই অভিনয়ের ডেবিউ হয়েছিল ধারাবাহিকের হাত ধরে। এখন দুজনেই টলিউডের একের পর এক হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন। এর মাঝেই কেটে গিয়েছে ১০ বছর। একাল আর সেকালের মধ্যে ব্যবধান আছে অনেকটাই। এই ১০ বছরে দুজনে নিজেদের অভিনয় শৈলীকে শান দিয়েছে। এবার দুর্গা পুজোয় মুক্তি পাচ্ছে ২ জনেরই নতুন ছবি। মিমি চক্রবর্তীর ‘বাজি’ ও ঋতাভরীর ‘এফআইআর’।

এর মাঝেই পুরোনো স্মৃতিচারণ করলেন অভিনেত্রী ঋতাভরী সোশ্যাল মিডিয়ায় পুরনো ও নতুন ছবি শেয়ার করে ১০ বছরের আগের পরের ছবি ভাগ করে নিলেন ঋতাভরী চক্রবর্তী। আর তাঁর সঙ্গে ফ্রেম ভাগ করলেন মিমি চক্রবর্তী। কথায় আছে দুই অভিনেত্রী নাকি ভালো বন্ধু হতে পারেন। প্রচলিত কথাকে বারে বারে চ্যালেঞ্জ করে দেখিয়েছে বলিউড। এমনকি টলিউডে এরকম ভালো বন্ধুত্বের উদাহরণ দেখিয়েছেন বহু নায়িকা।

টলিউডে মিমি চক্রবর্তী ও নুসরত জাহানের বন্ধুত্বের কথা কারোরই অজানা নয়। দুজন দুজনের বোনুয়া বলে পরিচিত। এবার মিমির সঙ্গে ফ্রেম ভাগ করে, স্মৃতি ভাগ করে ঋতাভরী বোঝালেন, পেশাগত দিক ভুলেও তাঁরা খুব ভালো বন্ধু। ‘ওগো বধূ সুন্দরী’ ও ‘গানের ওপারে’, এই দুই ধারাবাহিকের হাত ধরেই শুরু হয়েছিল এই দুই অভিনেত্রীর অভিনয় যাত্রা। ঋতাভরী লিখছেন, ‘আগামীকাল মুক্তি পাচ্ছে ‘বাজি’ ও ‘এফআইআর’। ১০ বছর আমরা কেবল টিঁকেই থাকিনি, লড়াইও করেছি। এই ১০ বছর রোলার কোস্টার রাইড ছিল আমাদের জন্য। অনেক খারাপ ও ভালো সময় এসেছে। তবে আমি তোমার ও নিজের জন্য গর্বিত। আমি জানি, তুমি ইন্ডাস্ট্রিতে আরও অনেকদিন রাজত্ব করবে। সেটা ইন্ডাস্ট্রির ঝলমলে দিকটার জন্য নয়, কঠিন পরিশ্রম দিয়ে।’ দুটি ছবিও এই লেখার সাথে জুড়ে দেন নায়িকা। এরপর এদের বন্ধুত্ব দেখে অনুগামীরা ভালোবাসা জানিয়েছেন।

রবিবার পঞ্চমীর দিন মুক্তি পাচ্ছে তাঁর নতুন ছবি, ‘এফআইআর’। প্রচারের কাজে হামেশাই তাই এদিক ওদিক ছুটে বেড়াতে হচ্ছে ঋতাভরীকে। সকলেই জানেন ঋতাভরী বাচ্চা খুব ভালোবাসেন তবে প্রিয় একরত্তিদের জন্য তিনি সময় বের করবেন না তা কী করে হয়? হ্যাঁ এই সিনেমার প্রচারের মাঝে ফাঁক পেতেই নতুন জামা নিয়ে তাঁর ‘আইডিয়াল স্কুল ফর ডেফ অ্যান্ড ডাম’-এ পৌঁছে গিয়েছিলেন ঋতাভরী চক্রবর্তী। আর সেই শিশুদের সঙ্গে অভিনেত্রী ভাগ করে নিলেন নতুন জামা, খাবার এবং আনন্দের মুহূর্ত। ‘দ্য আইডিয়াল স্কুল ফর ডেফ অ্যান্ড ডাম’ নামে একটি স্কুলের দায়িত্বে আছেন ঋতাভরী। সেখানে বিশেষভাবে সক্ষম শিশুদের নিজের বাচ্চার মতো ভালোবাসেন তিনি। এমনকি তাদের পঠন-পাঠনের ব্যবস্থা রয়েছে।

শুধু পঠন-পাঠন নয়, বিভিন্ন উৎসব অনুষ্ঠানে ওইসব কচিকাঁচাদের মধ্যে পৌঁছে যান ঋতাভরী। তাঁদের নিয়েই কাটে ঋতাভরীর জীবনের বিশেষ দিনগুলি। বাদ পড়েনি এবারের দুর্গাপুজোও। এবারও পুজোর শুরুতেই নিজের বাচ্চাদের কাছে পৌঁছে গেলে ঋতাভরী। ছোটদের হাতে তুলে দিলেন নতুন পোশাক। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছোটদের সঙ্গে পুজো উৎযাপনের ছবি শেয়ার করেছেন ঋতাভরী। এদিন হলুদ পোশাকে অভিনেত্রীকে আরো ঝলমলে দেখাচ্ছিল। ছবি শেয়ার করে ঋতাভরী জানালেন, আজ তাঁর স্কুলের ছোটদের নতুন জামা পরার দিন। সেইসঙ্গে এদিন স্কুলে আয়োজন করা হয়েছিল কবিতা ওয়ার্কশপেরও। স্কুলের সকল একরত্তিদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে কেক কাটেন ঋতাভরী। সবার হাতে তুলে দেন নতুন পোশাক আর খাবার।

Related Articles

Back to top button