×
অফবিট

কাঁঠালের বীজ ফেলে না দিয়ে তা দিয়ে বানিয়ে ফেলুন ‘কাঁঠালের বীজ বাটা’

Advertisement

শ্রেয়া চ্যাটার্জি – কাঁঠাল অতি পরিচিত একটি ফল। বিশেষত গরমকালে এটি পাওয়া যায়। কাঁঠাল খেয়ে তার বীজ অনেকেই ফেলে দেন। কিন্তু আপনি কি জানেন বিজেন মধ্যেই রয়েছে যত পুষ্টিগুণ? সেই বীজ দিয়েই বানিয়ে ফেলতে পারেন মনের মত রেসিপি। আজ আমাদের রেসিপির নাম কাঁঠালের বীজ বাটা। কাঁঠালের বীজের রয়েছে প্রচুর পরিমাণে জিংক আয়রন ক্যালসিয়াম পটাসিয়াম ম্যাগনেসিয়াম ইত্যাদি। একাধিক রোগের নিরাময় কাঁঠালের বীজ এর জুড়ি মেলা ভার। কাঁঠালকে এমনিতে ‘গাছ পাঁঠা’ বলা হয় যারা মাছ, মাংস খাননা, তাদের শরীরে প্রোটিনের ঘাটতি মেটাবে কাঁঠাল বীজ। যারা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় ভুগছেন তাঁরা নিয়মিত কাঁঠালের বীজ খেলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। দৃষ্টিশক্তি প্রখর করতেও কাঁঠালের বীজ বেশ উপকারী। তাই চোখের স্বাস্থ্যের জন্য খাদ্য তালিকায় নিয়মিত রাখতে পারেন কাছাড়ের বীজ। মহিলারা সাধারণত অ্যানিমিয়ায় ভোগেন, তাদের জন্য একেবারে উপযুক্ত হবে কাঁঠাল বীজ। কাঁঠাল পেজ অনেকেই অনেক রকম ভাবে খান এর মধ্যে বীজকে টুকরো টুকরো করে কেটে ও রান্নার স্বাদ অনেকেই বাড়িয়ে থাকেন। কিন্তু আজ আমাদের রেসিপি কাঁঠাল বীজ বাটা।

Advertisement

উপকরণঃ কাঁঠালের বীজ, রসুন বাটা, কালো জিরে বাটা, লঙ্কা বাটা, টমেটো বাটা, নুন, সরষের তেল।

প্রণালীঃ কাঁঠালের বীজ গুলির খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে নিয়ে মিক্সিতে বা শিলে ভালো করে পিষে বেটে নিতে হবে। কড়াইএ সরষের তেল দিতে হবে। তেল ভাল করে গরম হলে বীজ বাটা দিয়ে ভাল করে কষাতে হবে, কিছুক্ষণ পরে রসুন বাটা, টমেটো বাটা, লঙ্কা বাটা দিয়ে বেশ কিছুক্ষন ধরে কষাতে হবে। কষানো হয়ে গেলে নুন এবং কালো জিরে বাটা দিয়ে ভাল করে নাড়িয়ে ছাড়িয়ে কষিয়ে, খেয়াল করতে হবে পাশ থেকে যেন তেল ছেড়ে যায়, এমন অবস্থায় এলে কড়া থেকে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন ‘কাঁঠালের বীজ বাটা’।

Advertisement

Related Articles

Back to top button