বলিউডবিনোদন
Trending

যেই থালায় খাচ্ছেন সেই থালায় ছিদ্র করছেন? কঙ্গনাকে একযোগে কটাক্ষ জয়া বচ্চন ও সঞ্জয় রাউতের

আনলক ৪ এর প্রথম অধিবেশনে জয়া বচ্চন সরব হয়েছেন বলিউডের মাদকচক্রের বিষয় নিয়ে। তাঁর মতে, মাত্র কয়েকজনের জন্য সম্পূর্ণ বলিউড কে নিন্দা করা যায় না। দরকার হলে সরকার কঠিন পদক্ষেপ নিন মাদকচক্রের রমরমা নিয়ে।

সমাজবাদী পার্টির পক্ষ থেকে রাজ্যসভায় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছিলো জয়া বচ্চনকেই। তাই অভিনেত্রীর পাশাপাশি তাঁর একটি সামাজিক দায়িত্বও আছে। এর জেরেই আনলক ৪ পর্বে রাজ্য সভার অধিবেশনে বলিউডের হয়ে গর্জে উঠলেন। সাংসদ রবি কিষাণ ও অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের বিপক্ষে সরব হলেন। এদিন জয়া বচ্চন বলেন, বলিউডকে প্রতিনিয়ত বদনাম করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে মাদক যোগের অভিযোগ নিয়ে। এমনকি, ইন্ডাস্ট্রির কয়েক জনের জন্য গোটা বলিউডকে কোনওভাবেই দোষারোপ করা যায় না।

জয়া বচ্চনের কোথায়, বলিউডের সবাই মাদকাসক্ত নন। কিছু মানুষের জন্য গোটা বলিউডকে বদনাম করা একদমই ঠিক নয়, এতে বলিউডের ইমেজ খারাপ হচ্ছে। কঙ্গনার পাশাপাশি বিজেপি সাংসদ রবি কিষেণ-এর উপর সুর চড়িয়ে বলেন, “রবি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির হয়েও যে থালায় খাচ্ছেন, সেখানেই ছিদ্র করছেন।” এদিন জয়া বচ্চনের পাশাপাশি সুর চড়িয়েছেন শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত। কঙ্গনার কথার সমালোচনা করেই বিজেপি কে দুষলেন সঞ্জয় রাউত। তাঁর মতে, ‘বলিউডের পাশাপাশি অন্য জায়গাতেও মাদকচক্র চলে। যদি তেমনই হয়, তাহলে শিগগিরই মাদক চক্রের রমরমা বন্ধ করতে সরকারের পদক্ষেপ নেওয়া উচিত।’ এখানেই থামেননি শিবসেনার মুখপাত্র। এদিন তিনি সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে এক সুরেই জানান,’ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির উপর নির্ভর করে প্রায় ৫ লক্ষ মানুষের রুজিরুটি। বলিউডকে আক্রমণ করা মানে নিজেদের শিল্প, সংস্কৃতির অপমান করা।’

অবশ্য, কঙ্গনাও ছেড়ে দেবার পাত্রী নন। জয়া বচ্চনের কথার যোগ্য জবাব দিয়েছেন অভিনেত্রী। কঙ্গনা বলেন, “জয়াজির মেয়ে শ্বেতাকে যদি মারধর করে শ্লীলতাহানি করা হত কিশোর বয়সে, কিংবা অভিষেক ক্রমাগত আক্রমণ করা হত, তাহলেও কি তিনি একইভাবে এই কথাগুলিই বলতেন!”

Tags

Related Articles

Back to top button