ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

মাত্র কয়েক হাজার টাকার ব্যবসা করে মাসে ইনকাম লাখ লাখ টাকা, জেনে নিন ব্যাপারটা বিস্তারিত

কিভাবে এই টাকা রোজগার করবেন জানুন বিস্তারে

×
Advertisement

গত দু’বছর যাবত গোটা পৃথিবীর আর্থিক অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয়। বেহাল অর্থনীতির কারণে সারা বিশ্বের বহু মানুষ হয়ে পড়েছেন কর্মহীন। সাম্প্রতিক সময়ে তার ছবি অত্যন্ত স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। সরকারি হোক অথবা বেসরকারি চাকরির বাজারের অবস্থা অত্যন্ত করুন।এই অবস্থায় বিকল্প কর্মসংস্থান বেছে নেওয়ার জন্য ছোট ব্যবসা করতে সকলে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। কিন্তু ব্যবসা করার জন্য তো প্রয়োজন হবে পুঁজির। কোথায় গেলে পাওয়া যাবে? সেই পুঁজি? এ বিষয়ে সরকারি বিভিন্ন প্রকল্প থেকে সরাসরি এই মুহূর্তে পাওয়া যাচ্ছে ব্যবসার জন্য পুঁজি। মূলধনের ক্ষেত্রে টাকার সন্ধান হতে পারে আপনার। তাই চিন্তা না করে নিজে অথবা সরকারি অনুদান প্রকল্পের মাধ্যমে স্বল্প সুদের ঋণ গ্রহণ করে বাড়িতে বসে যে কোন ছোটখাটো ব্যবসা শুরু করতে পারেন আপনিও।

Advertisement

কিন্তু কি এমন ব্যবসা শুরু করবেন যাতে অল্প টাকা বিনিয়োগ করে হতে পারবেন সহজে লাখপতি? তবে এই সমস্ত বিষয়ে চর্চা করার আগে অবশ্যই ব্যবসা সম্পর্কে ভালোভাবে সম্যক ধারণা নিয়ে নেওয়া উচিত। এই অল্প পুঁজিতে ব্যবসা করে যদি আপনি সহজে কিভাবে সাফল্য পেতে পারেন সেটা জানতে চান তাহলে এই প্রতিবেদনটি পুরোপুরি পড়ুন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, যদি আপনারা বাড়িতে বসেঅল্প পুঁজিতে মধু এবং জ্যামের ব্যবসা করেন তাহলে কিন্তু সহজেই আপনি লাখপতি হতে পারবেন। খুব একটা বেশি মূলধন প্রয়োজন পড়ে না এই ব্যবসা করতে। পাশাপাশি মধু এবং জ্যাম দুটোই পুষ্টিগুণের দিক থেকে কিন্তু দুর্দান্ত। প্রাচীনকালে জরিবুটি ওষুধ কিংবা সাম্প্রতিক সময়ের বিভিন্ন জীবন দায়ী ওষুধ, মধু সব জায়গায় অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। পাশাপাশি খাবারের সঙ্গে এখন অনেকেই রয়েছেন যারা জ্যাম ব্যবহার করে থাকেন। এই জ্যাম কোনভাবেই খারাপ কোন জিনিস নয়। বরং বলতে গেলে ফলের রস দিয়ে তৈরি হবার কারণে জ্যাম অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর একটি জিনিস। শুধু চিনির পরিমাণ একটু বেশি থাকার কারণে অনেক স্বাস্থ্য সচেতন মানুষ রয়েছেন যারা জ্যাম খেতে পছন্দ করেন না। তাই তাদের জন্য মধু হতে পারে আদর্শ বিকল্প। তাই সকালবেলার ব্রেকফাস্টে হোক কিংবা কাশি সর্দি নিরাময়, মধু এবং জ্যাম সারা বিশ্বে সমাদৃত।

Advertisement

স্বল্প পুঁজির ব্যবসা হলেও মধু এবং জ্যামের ব্যবসা অত্যন্ত লাভজনক এবং মাসে তিন থেকে চার লক্ষ টাকা সহজেই আয় করা সম্ভব এই ব্যবসা থেকে। স্বল্প পুজিতে প্রথম অবস্থায় বাড়িতে মৌমাছির চাষ করে সেখান থেকে আপনারা পেতে পারেন মধু। এছাড়া আনারস কমলালেবুর ডালিম বেদানা লিচু আম আপেল ইত্যাদি ফল ব্যবহার করে তৈরি হয়ে থাকে জ্যাম বা জেলি। পেকটিন পাউডার, সাইট্রিক অ্যাসিড এবং চিনি ব্যবহার করে খুবই সহজে বাড়িতেই জ্যাম প্রস্তুত করে নেওয়া সম্ভব। অন্যদিকে মধু চাষ করে তা ফিল্টার করে কাচের জার অথবা বয়ামে রেখে দিলে তা কিন্তু অনেকদিন ধরে চলতে পারে। এরপর বাজারের চাহিদা অনুযায়ী প্যাকেটজাত জিনিস আপনি বাজারে ছাড়তে পারবেন। তাই যদি খুব দ্রুত সাফল্য পেতে হয় তাহলে খুব শীঘ্রই শুরু করে দিন মধু এবং জ্যামের ব্যবসা।

Related Articles

Back to top button