নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“নির্বাচনের আগে ভগবানকে ঘুষ দিলে কিছু হবে না”, অনুব্রত মণ্ডলের মহাযজ্ঞকে কটাক্ষ দিলীপের

দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) জানালেন, "তৃণমূল কংগ্রেস ২২০ তো দূরের কথা, ১২০ আসন পেলে অনেক। তাও ভগবান যদি দয়া করে হতে পারে। তবে গেরুয়া শিবির এবার ২০০ আসন পাবেই।"

×
Advertisement

একুশের নির্বাচনের আগে ক্রমশ বাড়ছে তৃণমূল-বিজেপি দ্বন্দ্ব। অভিযোগ এবং পাল্টা অভিযোগের ভিত্তিতে সরগরম হয়ে আছে বঙ্গ রাজনীতি। এরই মধ্যে গতকাল তৃণমূল কংগ্রেস জয়লাভ করার প্রার্থনা করার জন্য মহাযজ্ঞের আয়োজন করেছিলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। কিন্তু আজকে অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal) যজ্ঞের বিদ্রুপ করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

Advertisement

গতকাল বোলপুরের সতীপীঠে অমাবস্যা উপলক্ষে বীরভূম জেলা শাসক শিবিরের তরফে আয়োজন করা হয়েছিল এক মহাযজ্ঞের। ভোটে শাসক শিবির তথা তৃণমূল কংগ্রেসের জয় প্রার্থণা করেই এদিন এই মহাযজ্ঞের আয়োজন করা হয়। মহাযজ্ঞ ১ কুইন্টাল ৫১ কেজি কাঠ, ৪৫ কেজি ঘি এবং ১১ হাজার বেলপাতা নিয়ে দুপুর ১.৩০ টাক্য যজ্ঞ শুরু হয়ে প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে চলে। সেখানে ছিল ঢাক ঢোক ও। পুলিশি তরফেও কঙ্কালীতলায় রাখা হয়েছিল নিরাপত্তা। এই যোজ্ঞে উপস্থিত ছিলেন ১০ জন পুরহিতের সাথে বেলুড় মঠের এক সন্ন্যাসীও। যজ্ঞশেষে শাসক দলের সেনাপতি অনুব্রত নিজে বলেন, “মায়ের কাছে এতদিন যা যা চেয়েছি সব পেয়েছি। এইবার ২২০ টা সিট চাইলাম। সেটাও দেবেন বলে মায়ের কাছে আশা।”

অবশ্য আজ অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সকালে ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণ করতে করতে দিলীপ ঘোষ অনুব্রত মণ্ডলের মহাযজ্ঞের কটাক্ষ করে বলেন, “লোকসভা নির্বাচনের আগেও যজ্ঞ করেছিল। কিন্তু ফল কি কিছু পেয়েছিল? বরং উল্টে তৃণমূলের ১২ টা আসুন কমে গিয়েছিল। সারাবছর লুটপাট করার পর নির্বাচনের আগে ভগবানকে ঘুষ দিলে কোন লাভ হয় না।” এছাড়াও দীলিপবাবু এদিন বলেছেন, “এবারের বিধানসভা ভোটে তৃণমূল কংগ্রেস ২২০ তো দূরের কথা, ১২০ আসন পেলে অনেক। তাও ভগবান যদি দয়া করে হতে পারে। তবে গেরুয়া শিবির এবার ২০০ আসন পাবেই।”

Advertisement

Related Articles

Back to top button