ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

পুরনো ১০ টাকার নোট বিক্রি করে পেয়ে যান ৩ লাখ টাকা, এইভাবে বিক্রি করুন

এই পুরনো নোট বিক্রি করে এখন অনেকেই হতে শুরু করেছেন কোটিপতি

×
Advertisement

আপনি যদি ঘরে বসে অতিরিক্ত অর্থ উপার্জন করতে চান তবে এই খবরটি শুধুমাত্র আপনার জন্য। আপনাদের জন্য আমরা একটি অসাধারণ সুযোগ নিয়ে এসেছি যার মাধ্যমে আপনি ঘরে বসে লাখ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন এবং এর জন্য আপনাকে কোন রকম অতিরিক্ত বিনিয়োগ করতে হবে না। আপনার কাছে যদি একটি পুরনো পাঁচ টাকার নোট থাকে তাহলে এই এক একটি নোট থেকে আপনারা হাজার হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। একটি পুরনো ১০ টাকার নোট বিক্রি করে আপনারা ৩৫ হাজার থেকে ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। তবে এটা মনে রাখবেন, কোটিপতি হতে গেলে কিন্তু আপনার লাগবে একটি অত্যন্ত ইউনিক পুরনো পাঁচ টাকার নোট। পাশাপাশি এই প্রক্রিয়ার একটা স্পেসিফিক পদ্ধতি রয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক এই পদ্ধতিটি কি এবং কিভাবে আপনি বাড়ি বসে ১০ টাকার নোট বিক্রি করে রোজগার করতে পারবেন।

Advertisement

আজকে আমরা এমন একটি পাঁচ টাকার নোটের কথা বলছি যা বিক্রি করে আপনারা সহজেই হাজার হাজার টাকা পর্যন্ত রোজগার করতে পারবেন। এই নোটের বিশেষত্ব হলো এতে ৭৮৬ নম্বরটি কোথাও না কোথাও একটা লেখা থাকতে হবে। যদি নোটের নম্বরের জায়গায় ৭৮৬ লেখা থাকে তাহলে খুবই ভালো। এরকম নোট যদি আপনার কাছে থাকে তাহলে আপনি প্রায় ৩ লক্ষ টাকা পেয়ে যেতে পারেন এই নোটের বিনিময়ে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার দ্বারা জারি করা এই নোটটিকে “এক্সট্রিমলি রেয়ার নোটস” হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। যদি আপনার কাছে এই রকম একটি নোট থাকে তাহলে আপনি নিজেকে ভাগ্যবান বলে মনে করুন।

এই সময় এমন ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে এই ধরনের পুরনো নোট এবং কয়েন ব্যাপকভাবে ক্রয় বিক্রয় হতে পারে। এরকম কিছু ওয়েবসাইট এর মধ্যে একটি হল কয়েন বাজার এবং কুইকার। এই সমস্ত ওয়েবসাইটে যদি এই নোট আপনি বিক্রি করেন তাহলে তার বিনিময়ে প্রায় লক্ষ টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারবেন। যদি আপনার কাছে এমন কিছু নোট থাকে যেগুলিতে এই ধরনের শর্ত পালন করা হয়েছে তাহলে সেই কয়েন এবং নোট বিক্রি করে আপনারা খুব ভালো অর্থ রোজগার করতে পারবেন।

Advertisement

তবে আপনাকে জানিয়ে রাখছি, এই বিশেষ নোটটিকে খুঁজে পাওয়া কিন্তু অত্যন্ত কঠিন। কিন্তু যদি আপনার কাছে এই নোট থাকে তাহলে আপনি কয়েন বাজার ওয়েবসাইটে এই মূল্যবান নোটটিকে বিক্রি করতে পারেন। সেখানে এই পুরনো নোটের বিনিময়ে বহুগুণ টাকা পেয়ে যাবেন আপনি। সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে গিয়ে প্রথমে নিজেকে বিক্রেতা হিসেবে রেজিস্টার করতে হবে। তারপরে নির্দিষ্ট পদ্ধতি অবলম্বন করে আপনাকে অনলাইনে নিজের সমস্ত ডকুমেন্ট দিতে হবে। তারপরে আপনার নোটের ছবি তুলে অনলাইনে ভালো করে আপলোড করবেন আপনি। তারপর এই সেখান থেকে আগ্রহীরা নিজেরাই আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন এবং আপনি নিজের মতো করে এই নোটের একটি রেট নির্ধারণ করতে পারবেন। যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলে খুব সহজেই আপনি এই নোট বিক্রি করে ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত রোজগার করতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button