জীবনযাপনসৌন্দর্য

Skin Care Tips: সকালে ঘুম থেকে উঠে প্রতিদিন এই ৪টি কাজ করুন, উজ্জ্বল হবে ত্বক

×
Advertisement

প্রতি ঋতুতে আমাদের ত্বকের বিশেষ পরিবর্তন ঘটে, তাই পরিবেশ অনুযায়ী ত্বকের যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। বর্ষায় ত্বকের বিশেষ যত্ন নিতে হয়। এই মৌসুমে ত্বক আঠালো দেখায়। এতে ব্রণসহ আরও অনেক সমস্যা হতে পারে। আপনার সকালের ত্বকের যত্নের রুটিনে কয়েকটি জিনিস অন্তর্ভুক্ত করে আপনি সহজেই একটি উজ্জ্বল মুখ পেতে পারেন।

Advertisement

প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে এমন কিছু কাজ করা যায়, যা ত্বকের হারানো উজ্জ্বলতাই ফিরিয়ে আনতে পারে না, এতে আর্দ্রতা এবং তেল দুটোই ধরে রাখতে পারে।

১) উজ্জ্বল ত্বকের প্রথম ধাপ:-
উজ্জ্বল ত্বকের জন্য প্রথম ধাপটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনার ত্বককে সুন্দর ও কোমল করতে সবার আগে স্কিন স্টিমিং করুন। এটি করার মাধ্যমে, কেবল ছিদ্রগুলিই খুলে যায় না, ত্বকের গভীর-পরিষ্কারও ঘটতে পারে।

Advertisement

এজন্য প্রথমে একটি পাত্রে হালকা গরম জল নিন। কিছু গোলাপের পাপড়ি এবং রোজমেরি পাতা যোগ করুন।
এবার একটি পরিষ্কার কাপড় দিয়ে এই জলে ভিজিয়ে ভালো করে ছেঁকে নিন।
এর পর হালকা হাতে আপনার ত্বক পরিষ্কার করুন।এই তোয়ালে দিয়ে 3 মিনিট ধরে হালকা হাতে ত্বক পরিষ্কার করুন।
এতে করে আপনি ত্বকের ময়লা পরিষ্কার করতে সক্ষম হবেন।

২) উজ্জ্বল ত্বকের জন্য দ্বিতীয় ধাপ:-
বাষ্প গ্রহণের পর, দ্বিতীয় ধাপটি হল ম্যাসাজ। তাই স্টিম করার পর ত্বকে ১০ মিনিট ভালো করে ম্যাসাজ করুন। এটা করলে রক্ত ​​সঞ্চালন বাড়তে পারে। এছাড়াও ত্বকের ময়লাও বেরিয়ে আসতে পারে। ম্যাসাজের জন্য নারকেল তেল বা তিলের তেল ব্যবহার করতে পারেন।

৩) উজ্জ্বল ত্বকের জন্য তৃতীয় ধাপ:-
তৃতীয় ধাপে ত্বকের এক্সফোলিয়েটিং জড়িত। আপনি বাষ্প এবং ম্যাসাজ পরে ত্বক এক্সফলিয়েট। এ জন্য হালকা হাতে আপনার ত্বক পরিষ্কার করুন এবং মরা চামড়া থেকে মুক্তি পান। আপনি যদি ত্বক এক্সফোলিয়েট করতে যাচ্ছেন, তাহলে প্রথমে হালকা সাবান বা ফেস ওয়াশ দিয়ে মুখ ভালো করে ধুয়ে নিন। তারপর ত্বকে স্ক্রাব করে, এবার মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৪) উজ্জ্বল ত্বকের জন্য 4র্থ ধাপ:-

এখন ময়েশ্চারাইজারের পালা। ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে শুধু ত্বক নরম হয় না, ত্বকের হারানো আর্দ্রতাও ফিরে পাওয়া যায়। যেকোনো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে হালকা হাতে আপনার ত্বকে ২ মিনিট ম্যাসাজ করতে পারেন।

এর পাশাপাশি এই সব যত্নও নিন:-

আপনার যদি ত্বক সংক্রান্ত কোনো সমস্যা থাকে, তাহলে আপনার রুটিনে উপরে উল্লেখিত ধাপগুলো যোগ করার আগে একবার বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

Related Articles

Back to top button