নিউজরাজ্য

“আজ মানুষ গাড়ি ভেঙেছে, কালকে কুকুর ছাগল গাড়ি ভাঙবে”, দিলীপ ঘোষের কনভয়ে ইট বৃষ্টি নিয়ে পাল্টা কটাক্ষ অনুব্রতর

Advertisement

আলিপুরদুয়ারে দিলীপ ঘোষের কনভয়ে ইট বৃষ্টি নিয়ে বর্তমানে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। তারই মধ্যে বিজেপি সভাপতি দাবি করেছেন এই হামলা শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে করা হয়েছে। তারি অভিযোগের যোগ্য জবাব দিতে এবারে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ কে আক্রমণ করলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।

অনুব্রত মণ্ডলের এদিন দিলীপ ঘোষকে উদ্দেশ্য করে বলেন,” ভাষা জ্ঞান ঠিক না হলে এই অবস্থাই হয়। উনি পাগল ছাগল মানুষ। আজেবাজে ভাষায় কথা বললে মানুষ তো আর সেসব মেনে নেয় না।”এরপরই অনুব্রত মণ্ডল দিলীপ ঘোষকে একটি বেনোজির আক্রমণ করে বসেন। তিনি বলেন,” এখন মানুষ গাড়ি ভেঙেছে, পরে কুকুর ছাগল গাড়ি ভাঙবে।” অনুব্রত মণ্ডলের এই আক্রমণের পরেই আবারও জলঘোলা শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতি তে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ আলিপুরদুয়ারের জয়গাঁও তে গিয়েছিলেন একটি দলীয় জনসভায় যোগ দিতে। সেই পথে তাকে দেখানো হয় কালো পতাকা। তার উপরে গো-ব্যাক স্লোগান দেওয়া হয়। পাশাপাশি তার গাড়িতে ইটবৃষ্টি করা হয়। পুলিশের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, ২৫ টি বাইক নিয়ে যাত্রার কথা ছিল দিলীপ ঘোষের। কিন্তু বিজেপি প্রায় ১০০টি বাইক নিয়ে চলে আসে। এই কারনে তার রাজনৈতিক কর্মসূচিতে বাধা দেওয়া হয়। দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক বচসা শুরু হয়। তারপর, পুলিশের কর্ডন ভেঙে বেআইনিভাবে বাইকগুলি কে নিয়ে বেরিয়ে যান দিলীপ ঘোষ। তারপর তার সম্পূর্ণ যাত্রা গিয়ে পৌঁছায় মঙ্গলা বাড়িতে। এবং সেখানেই তাঁর কনভয় উদ্দেশ্য করে পাথর বৃষ্টি শুরু হয়। সেখান থেকে কালো পতাকা দেখানো হয় এবং গো ব্যাক স্লোগান দেওয়া হয়।

তবে শুধুমাত্র দিলীপ ঘোষ নয়, কালচিনির বিধায়ক উইলসন চম্প্রমারির গাড়িও ভাঙচুর করা হয়। এই ঘটনার প্রতিবাদে পরেরদিন সেন্ট্রাল এভিনিউতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে বিজেপি যুব মোর্চা।

অন্যদিকে, লাভপুরে তৃণমূলের বুথ ভিত্তিক কর্মী সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। সেখানেই তিনি দিলীপ ঘোষকে আক্রমণ করেছেন। অনুব্রতর সাথে উপস্থিত ছিলেন অভিজিৎ সিংহ, সাংসদ অসিত মাল, আব্দুল মান্নান সহ আরো অনেকে। বিহারে ফলাফল নিয়েও অনুব্রত মণ্ডল কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বিজেপিকে। কেষ্ট দার কথায়,” চূড়ান্ত জালিয়াতি হয়েছে। তাই ফলাফল প্রকাশে এত দেরি করা হয়েছে। বিহারে হলেও পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি কিছু করতে পারবে না।”

Tags

Related Articles

Back to top button