টলিউডবিনোদনভাইরাল & ভিডিও

Srabanti: জিমের পোশাকে ‘সেক্সি’ লুকে শ্রাবন্তী! নজর কাড়লো অভিনেত্রীর লকেটের ডিজাইন!

শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি! নিজের জীবনে যত চড়াই উৎরাই
হোক না কেন নিজের জীবনের প্রিয় মানুষদের সাথে ভালোবাসায় থাকতে ভালোবাসেন। আর নিজের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকতে ভালোবাসেন। তবে নিজের জীবনের এতো বিতর্ক থাকলেও পিছু হটতে চাননা। নায়িকার তিনটে ভাঙা বিয়ে, নতুন প্রেম তো আছে এখন যুক্ত বিতর্কের লিস্টে যোগ হয়েছে তাঁর অসফল রাজনৈতিক কেরিয়ার। পদ্ম শিবিরে মাস কয়েকেই মোহভঙ্গ, ফের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জল্পনা এগুলো শ্রাবন্তীর নামে জুড়েছে। তব কোনও বিতর্ক নিয়েই এই মুহূর্তে মাথা ঘামাতে রাজি নন শ্রাবন্তী।

কারণ তিনি সবসময় বিশ্বাস করেন, ‘ জীবন তোমাকে শক্ত হতে শেখায়, তাও নিজের প্রচেষ্টায়।
কাজ নিয়ে বেজায় ব্যস্ত থাকলেও সুযোগ পেলেই এখন অভিনেত্ সময় পেলেই এদিক সেদিক ঘুরতে বেরিয়ে পড়ছেন শ্রাবন্তী। তবে এখন ফের সমতলে ফিরেছেন। আর মাস কয়েক আগেই একটি জিমখ খুলেছিলেন অভিনেত্রী। তবে সর্বদা নিজের ফিটনেস নিয়ে খুব বেশি মাথা ঘামান শ্রাবন্তী তেমনটা নয়। তবে মাঝে মধ্যে শরীরচর্চাতে মন দেন। অনেক সময় নিজের শরীর নিয়ে কটাক্ষের স্বীকার হয়েছেন অভিনেত্রী

তাও নিজের ইন্সটাগ্রাম হ্যান্ডেলে ছবি শেয়ার করে থাকেন অভিনেত্রী। শনিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের নো-মেক আপ লুক আর কালো রঙের হাতকাটা টি-শার্টে ধরা দিলেন শ্রাবন্তী। এই ছবিতে মেক আপ না থাকলেও তাঁর মাখনের মতো ত্বক, পনি টেল করে বাঁধা চুলে উপচে পড়ছে গ্ল্যামার। ছবির ক্যাপশনে লেখা- ‘জাস্ট লাইক দ্যাট’। তবে এই ছবিতে সবার নজরে এল শ্রাবন্তীর গলার লকেট। সোনালি রঙের এই কাস্টোমাইজ লকেটে কার নাম লেখা রয়েছে? প্রশ্ন নেটিজেনদের আসলে একটু লক্ষ্য করলে ওই লকেটে দেখা যাচ্ছে লেখা রয়েছে ‘Gintu’৷ না প্রেমিকের নাম না আসলে অভিনেত্রীকে আদর করে বাড়ির সকলে জিন্টু বলেই ডাকে। তাই এই লকেটেটিও খুব কাছের কোনও মানুষই তাঁকে উপহার দিয়েছেন শ্রাবন্তীকে, তাই তো এতো আগলে রেখেছেন অভিনেত্রী।

রোশনের সঙ্গে গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে আলাদা থাকেন শ্রাবন্তী। অন্যদিকে চলতি বছরের গোড়া থেকে শোনা যাচ্ছে এক ব্যবসায়ী অভিরূপ নাগ চৌধুরীর সঙ্গে শ্রাবন্তী চুপিচুপি প্রেম করছেন। মাস কয়েক আগেই স্বামীর বিরুদ্ধে ডিভোর্স মামলাও দায়ের করেছিলেন। সেই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে ১৫ ডিসেম্বর। এই নভেম্বরে নিখিল-নুসরতের বিতর্কিত বিয়েতে সমাপ্তি হয়েছে। এখন দেখবার এই বিচ্ছেদ মামলার নিষ্পত্তি কবে হয়।

Related Articles

Back to top button