ক্রিকেটখেলানিউজরাজ্য

অবশেষে সৌরভের জমি ফিরিয়ে দিতে চলেছে রাজ্য

Advertisement

কলকাতা: স্কুল তৈরি করার জন্য রাজ্য সরকার  সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে (Sourav Ganguly) যে দু’একর জমি দিয়েছিল, সেই জমি সৌরভের কাছ থেকে ফিরিয়ে নিতে হিডকো’কে বলা হয়েছে। হিডকোর চেয়ারম্যান দেবাশিস সেন বুধবার বলেন, ‘মন্ত্রিসভায় প্রস্তাবটি অনুমোদিত হয়েছে। সৌরভের অনুরোধ মেনে তাঁর জমিটি ফেরত নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তাঁকে আমরা জমির দাম বাবদ প্রাপ্য টাকা দিয়ে জমি নিয়ে নেব।’

নিউটাউনে তার দু’একর জমি ফিরিয়ে দিতে চেয়ে হিডকোর কাছে গত অগস্টে আবেদন করেন সৌরভ।  তাঁর সেই প্রস্তাবে দীর্ঘদিন ধরেই ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ কিছুই বলেনি সরকার। গত পাঁচ মাসে সৌরভের সেই প্রস্তাব হিডকো, নগরোন্নয়ন দফতর ঘুরে অর্থ দফতরে গিয়েছিল। সেখান থেকে তা নবান্নের শীর্ষস্তরে পৌঁছলেও দীর্ঘদিন ধরে তা আটকে থাকে। ইতিমধ্যেই সৌরভ একবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখাও করে এসেছিলেন।  প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়ক ও  বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গেও ‘সৌজন্য’ সাক্ষাৎ করেছেন।  বিজেপিতে তার যোগদান নিয়েও চলছে জল্পনা। এসব জল্পনায় কান দিতে না বললেও সৌরভ কখনই বিজেপিতে যোগ দেবেন না এরকম কথাও কোনও সময়ে বলেননি।  রাজ্য মন্ত্রিসভা নিউটাউনের জমিটি ফেরতের প্রস্তাব অনুমোদন করে দিয়েছে।

সূত্রের খবর, ২০১৩-র মে মাসে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় কে নিউটাউনের অ্যাকশন এরিয়া-ওয়ান অঞ্চলে একটি স্কুল গড়ার জন্য ২ একর জমি দিয়েছিল রাজ্য মন্ত্রিসভা। জমির দাম ১১ কোটি টাকা হলেও সরকার অর্ধেক দামে জমিটি দিতে সম্মত হয়। কারণ, তিনি তাঁর স্কুলে গরিব বাচ্চাদের জন্য আসন সংখ্যার একাংশ সংরক্ষণ করার কথা জানিয়েছিলেন। সেই কারণেই গরিব মেধাবীদের ভাল স্কুলে পড়ার ব্যবস্থা করার শর্তেই রাজ্য মন্ত্রিসভা জমির দাম কমিয়েছিল বলে দাবি করেছিল সরকার।

এর আগে ২০০৯ সালে বামফ্রন্ট  সরকার সল্টলেকের সিএ ব্লকে সৌরভকে ৬৩ কাঠা জমি দিয়েছিল। সেটিও স্কুল তৈরির জন্যই নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু মামলা মোকদ্দমার জেরবারে সেই জমি সৌরভ ছেড়ে দিতে বাধ্য হন। সল্টলেক বা নিউটাউনের জমি পাবার ক্ষেত্রে কোনও সম্পর্ক না থাকলেও সরকারি আধিকারিকদের একাংশের ধারণা, সল্টলেকের জমিটি হাতে না পাওয়ার বিকল্প হিসাবেই ‘মা মাটি মানুষের’ সরকার নিউটাউনে তাকে জমির ব্যবস্থা করে দিয়েছিল। কিন্তু দেখা যায় গত সাত বছরে নিউটাউনে স্কুল গড়ার ব্যাপারে একটুও এগোতে পারেননি সৌরভ। তার মাঝেই  বিজেপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে জল্পনা শুরু হয়।

গত অগস্টে সৌরভ হিডকোর কাছে নিউটাউনের জমিটি ফেরত দিতে চেয়ে আবেদন করেন। হিডকো সৌরভের প্রস্তাবটি নগরোন্নন দফতরে পাঠিয়ে দেয়। সেখান থেকে জমির মূল্য,কত টাকা ফেরত দেওয়া হবে ইত্যাদি ঠিক করার জন্য প্রস্তাবটি পাঠানো হয় অর্থ দফতরে। দফতর ‘আর্থিক’ বিষয়গুলি দেখে মন্ত্রিসভার চূড়ান্ত অনুমোদন নেওয়ার আগে নবান্নের শীর্ষস্তরে প্রস্তাবটি পাঠায়। মন্ত্রিসভা অনুমোদন দেওয়ার পর হিডকো জমির দাম ঠিক করছে। সূত্রের খবর, গত সাত বছর সৌরভ জমিটিতে কোনো রকম কোন কাজ না করলেও ‘মূল’ দামই ফেরত দেওয়া হবে তাকে। সূত্রের খবর, নতুন বছরের শুরু হতেই সেই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে বলে জানাচ্ছেন হিডকোর আধিকারিকেরা।

Tags

Related Articles

Back to top button