নিউজরাজ্য

বাসে উঠলেই ভাড়া ১৪ টাকা, ভাড়া না বাড়ালে আন্দোলনের হুমকি বাসমালিকদের

কলকাতা ও শহরতলীতে বাসের ন্যূনতম ভাড়া ১৪ টাকা করার দাবি বাসমালিক সংগঠনের। না মানলে ১৫ জানুয়ারি থেকে আন্দোলনের হুমকি

Advertisement
×

গোটা দেশজুড়ে মূল্যবৃদ্ধি ও সেইসাথে করোনা ভাইরাস প্যানডেমিক এর প্রভাব নাজেহাল করে দিচ্ছে মধ্যবিত্তের অবস্থা। এরইমধ্যে কলকাতা ও শহরতলীতে বাস ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে ফের সরব হয়েছেন বাস মালিক সংগঠনগুলি। তারা জানিয়ে দিয়েছে ন্যূনতম ১৪ টাকা বাস ভাড়া করা হবে। এই ব্যাপারে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সরকার সিদ্ধান্ত নিক। আর বাস ভাড়া বৃদ্ধির ব্যাপারে সরকার সিদ্ধান্ত না নিলে ১৫ জানুয়ারির পর থেকে আন্দোলনের নামবে তারা।

Advertisement
Advertisement

গত বুধবার দক্ষিণ কলকাতায় কলকাতা ও শহরতলীর বাস মালিক সংগঠনগুলোর মধ্যে একটি বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিল মোট ৬ টি বাস মালিক সংগঠনের প্রধানরা। তাদের দাবি গত কয়েক মাস ধরে ডিজেলের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেই সাথে বাড়ছে টায়ারের দাম এবং বিমার খরচও বেড়ে গেছে। অন্যান্য ক্ষেত্রে অনেক বেশি আগের তুলনায় খরচ হচ্ছে। কিন্তু করোনা সংক্রমনের ভয়ে বাড়ছে না বাসে যাত্রী সংখ্যা। এতদিন বাস মালিক সংগঠনগুলি ভেবেছিল লোকাল ট্রেন চালু হলে তাদের অবস্থা ফিরবে। কিন্তু লোকাল ট্রেন চালু হয়ে গেলেও যাত্রী সংখ্যা তেমন কোনো হেরফের হয়নি। ফলে বাস মালিককে প্রবল ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

Advertisement

জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেটের সাধারণ সম্পাদক তপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “লকডাউনের পর বাস সংক্রান্ত সমস্ত প্রতিশ্রুতি সরকার যা দিয়েছিল তা কিছুই পূরণ হয়নি। তার ওপর যাত্রী সংখ্যা বাড়ছে না। এই জন্য একটি রুটে যাত্রী সংখ্যা কম হওয়ায় একদিনে সব বাস নামানো যাচ্ছে না। এর ফলে প্রচণ্ড ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে মালিকদের। এই জন্য বাস ভাড়া বাড়ানো ছাড়া আর কোন উপায় নেই। তাদের দাবি বাসের ন্যূনতম ভাড়া ১৪ টাকা করতেই হবে।”

Advertisement
Advertisement

অন্যদিকে সরকারের নবগঠিত পরিবহন বিষয়ক কমিটির সভাপতি হয়েছেন মদন মিত্র। তিনি বলেছেন, “এর আগে পরিবহন মন্ত্রী ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। সে বাস মালিকদের সমস্যা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সাথে কোন কথাই বলেনি। তাই সমস্যার কথা অধরাই রয়ে গেছে। এই সমস্যা শুভেন্দু তৈরি। এবার আমি ওদের সাথে কথা বলে সমস্যার সমাধান করে নেব।”

Advertisement

Related Articles

Back to top button