টলিউডবিনোদনভাইরাল & ভিডিও

‘মানিকে মাগে হিতে’ আধো গলায় গান গেয়ে তাক লাগাল একরত্তি খুদে, মুগ্ধ নেটিজেনরা! রইল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়াতে এই মুহূর্তে একটি নতুন গান বেশ ট্রেন্ডিং। নেটদুনিয়ার দৌলতে এই মুহূর্তের নতুন ট্রেন্ডিং গান হল ‘মানিকে মাগে হিথে’। সিংহলি ভাষার এই গানের তালে তাল মেলাননি এমন সোশ্যাল মিডিয়া ইউজার বোধহয় দূরবীনেও খোঁজ মিলবেনা। এই গানের মধ্যে এক অদ্ভুত মাদকতা যা একবার শুনলে মন ভরছে না কারও। বার বার শুনছে। ইন্সটাগ্রাম রিল থেকে ফেসবুক স্টোরি, এমনকি বহু টিনেজ এই গান নিয়ে ড্যান্স কভার থেকে ফোনের কলার টিউন সর্বত্র এই গান বাজছে। যত দিন যাচ্ছে এই গানের জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন আঞ্চলিক ভাষায় এই গানের সুরের সঙ্গে তাল মিলিয়ে তৈরি হয়েছে কভার।

তবে এবার এক খুদে নিজের দুষ্টুমি দিয়ে এই সিংহলি গানের মজার ভিডিও প্রস্তুত করলেন। এই ছোট্ট শিল্পীর নাম বিদীপ্তা ঘোষ। এই ছোট্ট বিদীপ্তার ছোট্ট দু’টি চোখে লুকানো রয়েছে একগাদা দুষ্টুমি। সাড়ে তিন বছরের একরত্তির মুখের হাসি রসগোল্লার থেকেও বেশি মিষ্টি। সারাক্ষণ নিজের পাকা পাকা কথায় বাড়ির লোকজনকে মাতিয়ে রাখে। গান শুনতে বড্ডো ভালবাসে, আবার পছন্দের গান শুনলে নিজের মতো করে নাচতেও শুরু করে দেয়। ইয়োহানির গাওয়া সিংহলি এ-ই গানটি শুনতেন মানুর মা বাসন্তী দেবী। আর সেই থেকেই গানটি পছন্দ মানুর।

তাই মজা করে তাঁর একটি প্যারোডি ভিডিও করে বসে মানু। আর তাই আপলোড করেছিলেন বিদীপ্তার বাবা বিজয় ঘোষ। এক লক্ষেরও বেশি দর্শক দেখেন ভিডিওটি। এরপরই আসল গানের ভিডিওটি আপলোড করা হয়। ছোট্ট মানু দর্শকদের নমস্কার করে ভিডিও শুরু করেন। নিজের আদুরে গলায় নানা কথা বলার পর গান শুরু করেন। মাঝে মধ্যে কথা বলতে আবার ছোট্ট তারকার খিদেও পেয়ে যায়। খেতে বড় ভালবাসে মানু। চকোলেট, কেক, পেস্ট্রি পেলেই খুশি। আর দর্শক খুশি তার মিষ্টি গলা শুনে।

বয়স চার হয়ে গেলেও এখনও স্কুলে ভর্তি হয়নি ছোট্ট মানু। স্কুল না গেলেও ভার্চুয়াল ক্লাসের পর্ব চলছে। এই ক্লাশ শেষ হলেই তিনি মেয়েকে স্কুলে পাঠাবেন। ‘মানু বুড়ি’র আরও ভিডিও ভাইরাল৷ হয়। এবার আর প্যারোডি নয় ‘মানিকে মাগে হিঠে’ নিজের আদো আদো গলায় গাইলেন। গানের কথা স্পষ্ট না হলেও মানুর সুর নেটিজেনদের মুগ্ধ করে। তাই তো নিমেষে ভাইরাল হয় এই ছোট্ট মানুর এই মিষ্টি ভিডিও। লক্ষাধিক নেটিজেন দুষ্টু মানুর মিষ্টি ভিডিও দেখে ভালোবাসা জানিয়েছেন।

Related Articles

Back to top button