ভাইরাল & ভিডিও

VIRAL: রসগোল্লা খাওয়াতে গিয়ে বিয়ের মঞ্চে নতুন জামাইবাবুকে চুমু খেলেন শালী, ব্যাপক ভাইরাল ভিডিও

ভিডিওটি bhutni ke memes নামক একটি ইনস্টাগ্রাম পেজ থেকে পোস্ট করা হয়েছে

×
Advertisement

আমাদের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠেছে মোবাইল ফোন এবং ইন্টারনেট পরিষেবা। এই দুটি জিনিস ছাড়া প্রযুক্তির সাথে তাল মিলিয়ে চলা অসম্ভব। তাছাড়া বর্তমানে লকডাউনে গৃহবন্দি অবস্থায় মানুষ বেশি করে অনলাইন ব্যবস্থার ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। বিভিন্ন ধরনের ভিডিও বা ছবি মুহুর্মুহু পোস্ট হয় ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে। এখনকার দিনের ট্রেন্ড শর্ট ভিডিও বানানো। সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বড় বড় তারকার এই শর্ট ভিডিওর দিওয়ানা হয়ে গেছে।

Advertisement

এই সোশ্যাল মিডিয়াতে মাঝে মাঝেই ভাইরাল হয়ে যায় বিভিন্ন বিয়েবাড়ির ভিডিও। বিয়েবাড়িতে বর বউয়ের রোমান্টিক দৃশ্য হোক কি আত্মীয় স্বজনের হাস্যকর কার্যকলাপ মুঠোফোনে বন্দী করে সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করে থাকে অনেকেই। সেইসব ভিডিও ভাইরালও হয় প্রচুর। বর্তমানে চলছে বিয়ে বাড়ির সিজন। তাই সোশ্যাল মিডিয়া খুললেই বিভিন্ন বিয়েবাড়ির খুনসুটি বা হাসি হুল্লোরের ভিডিও চোখের সামনে চলে আসছে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে একেবারে অন্য ধরনের একটি বিয়ের ভিডিও ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গিয়েছে যে বর কনে মঞ্চে বসে আছেন। তাদের অভিবাদন জানাতে এসেছিল কয়েকজন শালী। তার মধ্যে একজন শালী নতুন বরকে একটি রসগোল্লা খাওয়ানোর জন্য হাতে নেন। কিন্তু বরের সাথে মজা করার জন্য তিনি কিছুতেই রসগোল্লাটি বরের মুখের কাছে নিয়ে যাচ্ছিলেন। ওই নতুন বর হঠাৎ করেই রসগোল্লাটি খেতে যায় এবং অন্যদিকে ওই শালী একই সময় ওই রসগোল্লাটি খেতে যায়। ফলবশত রসগোল্লা পড়ে গেলেও নতুন বরের সাথে ঠোঁটে ঠোঁটে মিলে যায় নতুন বরের। এরপর ওই শালী লজ্জা পেয়ে স্টেজ থেকে নেমে যায়।

Advertisement

এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হতে হাসির রোল উঠেছে নেট নাগরিকদের মধ্যে। ভিডিওটি ইন্টারনেটে আসার পর থেকে তাতে লাইক ও কমেন্ট এর বন্যা বইয়ে দিয়েছে নেটিজেনরা। ভিডিওটি bhutni ke memes নামক একটি ইনস্টাগ্রাম পেজ থেকে পোস্ট করা হয়েছে। অনেকেই ভিডিওতে কমেন্ট করে জানিয়েছেন যে তাদের হাসি থামছে না। এক কথায় বিয়েবাড়ির ওই মুহূর্তের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক ভাইরাল হয়ে গেছে।

Related Articles

Back to top button