কলকাতানিউজরাজ্য

স্কুল খোলা নিয়ে প্রশ্ন! জিজ্ঞাসা মধ্যশিক্ষা পর্ষদ ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের

Advertisement

সোমবার মধ্যশিক্ষা পর্ষদ, উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের তরফে রাজ্যের স্কুল শিক্ষা দফতরের কাছে দশম এবং দ্বাদশ শ্রেনীর স্কুল নিয়ে প্রশ্ন করেন। গতকালই ৩০ থেকে ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত সিলেবাস কাটছাঁটের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। কিছুদিন আগেই জানানো হয় মাধ্যমিক শুরুর ভাবনা ফেব্রুয়ারিতেই হবে বলে জানানো হয়েছে কিন্তু পরীক্ষার ক্ষেত্রে সিলেবাস কমানো হবে বলে সূত্রের খবর।

এই নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত জানালেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। জানা গিয়েছে এখনো পর্যন্ত মাধ্যমিকের সূচির ওপরই নির্ভর করেই উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ তাদের পরীক্ষা সূচি ঠিক করবে। এ বছর মাধ্যমিক শুরু হয় ১৮ ফেব্রুয়ারি, উচ্চমাধ্যমিক শুরু হয় ১২ মার্চ থেকে। সিলেবাস কতটা কমানো যেতে পারে সেই বিষয়ে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সঙ্গে আলোচনার পরেই জানানো হবে। আশা করা হচ্ছে আগামি সপ্তাহের মধ্যে ২০২১ এর উচ্চ মাধ্যমিক কবে হবে সেই নিয়েও একটা স্পষ্ট ভাবে ধারণা পাওয়া সম্ভব হবে।

উত্তরপ্রদেশ সরকার একটি নির্দেশিকায় জনিয়েছে দুটি শিফটে ভাগাভাগি করে ক্লাস করতে হবে, দুটি শিফটে ৫০ শতাংশ করে উপস্থিতি থাকতে হবে এবং সেখানে সামাজিক দূরত্ব রাখাও সম্ভব হবে৷১৯ অক্টোবর থেকেই শুরু হয়ে যাবে স্কুলের পঠনপাঠন৷ স্কুলে আসা পড়ুয়াদের আনতে হবে করোনার নেগেটিভ টেস্ট রিপোর্ট৷ অন্য দিকে কিছু দিন আগেই স্কুলে গিয়ে করোনা সংক্রমণের শিকার হয় অন্ধ্রপ্রদেশের এক সরকারি স্কুলের ২৭ পড়ুয়া।

জানা গিয়েছে এরা সবাই উপসর্গহীন। বিজিয়ানগরম জেলা পরিষদ হাইস্কুলের নবম ও দশম শ্রেণির ওইসব পড়ুয়ারা নিজেদের কিছু জিজ্ঞাসা থাকার কারণেই তারা স্কুলে যেত। আর তার মাঝেই এতো জন করোনায় আক্রান্ত হয়। স্কুলের দাবি তারা সব রকম প্রচেষ্টা নেওয়া হয়েছিলো। এই দিনের বৈঠকে শুরু থেকে শেষ পর্যন্তই কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় মাধ্যমিক পরীক্ষার সিলেবাস থেকে শুরু করে পরীক্ষা কবে নেওয়া সম্ভব তা নিয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা দেন।

 

Tags

Related Articles

Back to top button