টলিউডবাংলা সিরিয়ালবিনোদন

Desher Mati: দেশের মাটির জনপ্রিয় জুটি রাজা-মাম্পির বিয়ে! খুশিতে আত্মহারা অনুরাগীরা

সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা মানেই টেলিভিশিনের পর্দা খুললেই “দেশের মাটি” ধারাবাহিক দেখা চাই চাই। শিকড়ের অমোঘ টানের কথাই বলতে শুরু হয় দেশের মাটি ধারাবাহিক। এই গল্পের শুরু স্বরুপনগরের এমটি গ্রামের। এই গল্পের মূল উপজীব্য হল যৌথ পরিবারের গল্প । এই গল্পে পরিবারের সদস্যের সাথে অনেক জুটি আছে। যেমন নোয়া আর কিয়ান, রাজা আর মাম্পি, উজ্জয়িনী আর ডোডো ।

নোয়া কিয়ানের জুটির থেকে রাজা মাম্পির জুটি এখন বেশি বিখ্যাত। এই ধারাবাহিকে মুখ্য চরিত্র কিয়ান ও নোয়া হলেও দর্শকদের বড় কাছের আর প্রিয় জুটি হল রাজা ও মাম্পি। রাজা মাম্পির টক মিষ্টি ঝাল প্রেম কাহিনী সকলের বেশ পছন্দ। তবে বেশ কিছুদিন আগে রাজা আর মাম্পির জীবনে অন্ধকার নেমে আসে। শুধু কি রাজা মাম্পির দর্শকদের মনেও ঝড় আসে। মাম্পির বাবা চক্রান্ত করে রাজার জীবনে নিয়ে আসে কৃপা বসুকে। কৃপা রাজার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে আনে রাজার বাড়ির সামনে। আর রাজাকে বিয়ে করার জন্য বাধ্য করে।

এরপরই মাম্পির বাবা রাজা ও কৃপা বসুর বিয়ে ঠিক করেন। তবে এই বিয়ে বাড়ির অন্যরা, রাজা আর দর্শকেরবো একেবারেই মেনে নিতে পারছিলেন না। অন্যদিকে মাম্পিও অভিমান করে নিজের থেকে রাজাকে সরিয়ে দিয়েছিল। মাম্পির মনের ভিতরে যতি কষ্ট পাক তবু ওমুখ ফুটে কোনও কথা স্বীকার করেনি। শুধু রাজাকে দোষারোপ করেছে। অন্যদিকে বাড়ির কর্তা দাদাইও কোন কিছু বিচার না করে রাজাকে আদেশ দেন ওই কৃপা বসুকে বিয়ে করার।

দাদাইয়ের ওপ্র কোনো কথা বলতে না পেরে সেও অভিমান করে রাজি হয়ে যায় বিয়ে করতে। অন্যদিকে এসপি বাবু কৃপা বসুকে সব জেরা করে জানতে পেরে যায়। তারপর তিনিও ঠিক করেন তিনি কৃপার সাথে রাজার বিয়ের দিনেই মাম্পি এবং রাজার বিয়ে দেবে। পাশে নেয় নোয়া, কিয়ান,ডোডো আর উজ্জ্বয়িনীকে। তবে রাজা এসব না জেনেই ম বিয়ের দিন ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করতে যায়। রাজা মনে মনে বলে ওঠে, ‘মৃত্যুর সঙ্গে একটু আগে আমার বিয়ে হয়ে গেছে..আর কোন মানুষের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার রইল না’।

তবে রাজাকে সুস্থ করে তোলে কিয়ান ও তার বাবা। এখন ধারাবাহিকের মোড় ঘুরে গিয়েছে। কৃপার সব মিথ্যে কথা এসপি বাবু সকলের সামনে নিয়ে এসেছে। পরিবারের সকলে এমনকী রাজার মাম্পিও নিজের ভুল বুঝতে পেরেছে নিজের ভুল। তাই এবার আর কোনো ভুল বোঝাবুঝি নয়। এবার সত্যি সত্যি বিয়েটা মাম্পির রাজার সঙ্গেই হচ্ছে। রাজা মাম্পির মিল দেখে দর্শকরাও খুব খুশি।

রাজা মাম্পির বিয়ে দেখার জন্য অধীর আগ্রহী এখন সকলে। সোশ্যাল মিডিয়াতে কেউ কেউ লিখেছে ‘ওদের মুখের এই হাসিটার অপেক্ষাতেই যে রয়েছিলাম’, ‘উফফ কি শান্তি লাগছে’-র মতো একাধিক কমেন্ট। শুধু রিল লাইফে নয় রাজা-মাম্পি ওরফে রাহুল-রুকমার জুটি বেশ জনপ্রিয় রিয়েল লাইফেও। মাঝে টলিপাড়ায় এমন গুঞ্জন ছিল , দু’টিতে নাকি বাস্তবেও চুটিয়ে প্রেম করছেন। যদিও সকলের সেই ভুল ভাঙেন রুকমা। জানান, ‘রাহুলদা তাঁর খুব ভালো বন্ধু। তিনি অভিনয়ের অনেক কিছু শেখেন রোজ রাহুলদার থেকে। আর রাহুল ও বন্ধু হিসেবে পরিচয় দেন। রিয়েল না হোক দর্শক রিলেই এদের মিল দেখতে চায়।

Related Articles

Back to top button