বলিউডবিনোদন

কেন মা হতে পারছেন না ভারতী? স্পষ্ট জবাব দিলেন কমেডিয়ান



ভারতী সিং মানেই কমেডির পুরো ডায়েরি। কাপিল শর্মার শোতে নিজের মজার জোক উপস্থাপন করে এখন সে জনপ্রিয়তার শীর্ষে। বলিপাড়ার সেরা কমেডি কুইনের মধ্যে অন্যতম। টেলিভিশন শো ‘কমেডি সার্কাস’-এর মঞ্চে স্বামী হর্ষের সঙ্গে প্রথম পরিচয় ভারতীর। ওই শোয়ের স্ক্রিপ্ট রাইটার ছিলেন হর্ষ। সেখান থেকেই বন্ধুত্ব এবং পরে প্রেম। তারপর ‘কমেডি ক্লাস’ শোতেও কাজের পাশাপাশি ২০১৭ তে একসাথে সারাজীবন হাঁটার জন্য বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

হর্ষ আর ভারতী মানেই কমেডির হিট জুটি এখন। গত বছর খাতরোকে খিলাড়িতে নিজদের মজার ছলে দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছেন। এখন কমেডি শোয়ের পাশাপাশি নানান রিয়ালিটি শোয়ের উপস্থাপনা করছেন জুটি বেঁধে। এখন কালার্সে ডান্স দিওয়ানে ৩-এর সঞ্চালক হিসাবে দেখা মিলছে ভারতী ও হর্ষ লিম্বোচিয়ার। স্বামীর সঙ্গে জুটি বেঁধে এই ডান্স রিয়ালিটি শো সঞ্চালনার পাশাপাশি ‘দ্য কপিল শর্মা শো’ তেও অংশ নিয়েছেন ভারতী। দুটি কাজ সমানতালে সামলাচ্ছেন ভারতী।

বলিউডে টেলিভিশন জগতে এখন খুশির খবর। এই লকডাউনে বহু সেলেবের ঘরে এসেছে নতুন সদস্য। সচারাচর অনেকের প্রশ্ন ভারতী আর হর্ষের ঘরে নতুন অতিথি কবে আসবে? সম্প্রতি কমেডিয়ান ভারতী সিংয়ের কাছে এক সাংবাদিক প্রশ্ন রেখেছিলেন তাঁর প্রেগন্যান্সি নিয়ে। বরাবরের মতো এবারেও প্রশ্নের উত্তর স্মার্টলি দেন ভারতী তবে তাঁর উত্তর শুনলে আপনার হাসি পাবে।

সম্প্রতি ডান্স দিওয়ানের সেটে পাপারিজ্জদের মুখোমুখি হন ভারতী। সেখানেই এক ফটোগ্রাফার ভারতীকে হঠাৎ প্রশ্ন করে বসেন, ‘মাম্মা কবে হচ্ছেন আপনি’, এই প্রশ্ন শুনে কিছুক্ষণ চুপ থাকেন ভারতী। তারপর স্বমহিমায় হাসতে হাসতে জবাব দেন এই প্রশ্নের। ভারতী সোজাসুজি বলে বসেন, ‘আরে ভাই, সবাই বাচ্চার অপেক্ষা করছে। ব্যাস, আপনারা একটু একা থাকতে দিন, কিছু একটা ব্যবস্থা নেওয়া যাবে তাহলে। ভারতীর জবাব শোনা মাত্রই হাসিতে ফেটে পড়েন অন্যান সাংবাদিকরা। এই ভিডিও বেশ ভালোই ভাইরাল নেটদুনিয়াতে।

চলতি বছরের শুরুতে এক রিয়ালিটি শোয়ের মঞ্চে ভারতী জানিয়েছিলেন, তাঁর সন্তানের পরিকল্পনা ছিল, তবে অতিমারীর জেরে আপতত সেই প্ল্যান স্থগিত রেখেছেন তাঁরা। এখন দুজনে নিজেদের কাজে ফোকাস রাখছেন। কিছুদিন আগে ডান্স দিওয়ানের সেটে এক মায়ের ১৪ দিনের সন্তানের মৃত্যুর কথা শুনে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন ভারতী। তখন তিনি জানান, তাঁরা বেশ কিছু দিন ধরেই সন্তান নেওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন, তবে এই ধরণের কাহিনি শুনলে সত্যি মন ভেঙে যায়। তাঁরা আজকাল এই বিষয়টা নিয়ে আর ভাবছি না, কারণ তিনি নিজের সন্তানের জন্য এইভাবে কাঁদতে চান না’। 

Related Articles

Back to top button