খেলাক্রিকেট

দীনেশ কার্তিকের সহজ ক্যাচ ছেড়ে ভিলেন এখন কে এল রাহুল, ক্ষোভ উগরে দিলেন গম্ভীর

শুধুমাত্র দীনেশ কার্তিকের ক্যাচ ফেলেনি লখনউ সুপার জায়েন্টস। বিধ্বংসী মেজাজে ব্যাটিং করতে থাকা ব্যাঙ্গালোরের তরুণ ক্রিকেটার রজত পাতিদারকে দুইবার জীবন দান করে লখনউ সুপার জায়েন্টস।

×
Advertisement

চলতি আইপিএলের প্লে-অফে লড়াইটা যতটা সহজ মনে হচ্ছিল শেষ হলো ঠিক তার উল্টোভাবে। দুর্দান্ত ছন্দে থাকা লখনউ সুপার জায়েন্টসের বিপক্ষে এলিমিনেটর ম্যাচে জয়লাভ করে কোর্য়াটার ফাইনাল খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে রয়েল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালোর। আগামীকাল দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে শক্তিশালী রাজস্থানের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে রয়েল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালোর।

Advertisement

এদিকে ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে ১৪ রানে পরাজিত হওয়ার পর লখনউ সুপার জায়েন্টসের মেন্টর গৌতম গম্ভীর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অধিনায়ক কে এল রাহুলের উপর। তার মতে, গুরুত্বপূর্ণ সময়ে দীনেশ কার্তিকের ক্যাচ ফেলে ম্যাচ কঠিন করে ফেলেছিলেন কে এল রাহুল। তার মতে, ওই সময় কে এল রাহুল যদি দীনেশ কার্তিকের সহজ ক্যাচ হাতছাড়া না করতো তবে ব্যাঙ্গালোরের সংগৃহীত রানের পরিমাণ কখনোই আকাশছোঁয়া হতো না।

উল্লেখ্য, ব্যাঙ্গালোরের ব্যাটিং ইনিংসের ১৫ তম ওভারের মহসিন খানের (Mohsin Khan) বলে ক্যাচ তুলেছিলেন কার্তিক। মিড অফে ফিল্ডিং করছিলেন কে এল রাহুল। বল সোজা গিয়ে তার হাতে পড়লেও গ্রিপিংয়ের ভুলে বল কে এল রাহুলের হাত থেকে ফস্কে যায়। তখন দীনেশ কার্তিক ব্যক্তিগত ২ রানে ব্যাট করছিলেন। সেই দীনেশ কার্তিক অবশেষে ২৩ বলে ৩৭ রানের ইনিংস খেলেন।

Advertisement

শুধুমাত্র দীনেশ কার্তিকের ক্যাচ ফেলেনি লখনউ সুপার জায়েন্টস। বিধ্বংসী মেজাজে ব্যাটিং করতে থাকা ব্যাঙ্গালোরের তরুণ ক্রিকেটার রজত পাতিদারকে দুইবার জীবন দান করে লখনউ সুপার জায়েন্টস।

প্রথম বার তাঁর ক্যাচ পড়ে ১৫.৩ ওভারে। রবি বিষ্ণোইয়ের বলে রজতের ক্যাচ ছাড়েন দীপক হুডা। একেবারে সহজ ক্যাচ ছিল। এর পর ফের ১৭.৩ ওভারে মহসিন খানের বলে পতিদারের ক্যাচ ধরতে পারেননি ভোরা। ঠিক তার পরের বলে ছক্কার সাহায্যে ব্যক্তিগত শতরানের গণ্ডি পার করেন রজত পাতিদার। মূলত দীনেশ কার্তিক এবং রজতের বিধ্বংসী ইনিংসের উপর ভর করে ইনিংস শেষে ২০৭ রানের বিশাল স্কোর অর্জন করতে সক্ষম হয় ব্যাঙ্গালোর।

Related Articles

Back to top button