×
বাংলা সিরিয়ালবিনোদন

‘তুমি তোমার দাদার ব্যাট-বল চুরি করে ক্রিকেট খেলতে যেতে’, দাদাকে চুরির অপবাদ একরত্তি খুদের

Advertisement

‘দাদাগিরি আনলিমিটেড’ জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় একটি রিয়্যালিটি শো। দাদাগিরির প্রতি এপিসোডে থাকে নিত্যনতুন চমক। তারকা থেকে সাধারণ সকলেই আসেন এই শোতে। অনেকে আসেন তাদের জীবনের দাদাগিরির গল্প শোনাতে। এই সিজনের ট্যাগলাইন ‘দাদাগিরি সিজন ৯, হাত বাড়ালেই বন্ধু হয়’। অবশ্য সেই তালিকায় রয়েছে অসংখ্য খুদে সদস্যরাও। কয়েকদিন আগে সরস্বতী পুজো স্পেশাল এপিসোড এসেছিল ছয় একরত্তি। দাদাগিরির মঞ্চে তাদের মধ্যে শ্রীহানের কীর্তি দেখে রীতিমত অবাক দাদার পাশাপাশি দর্শকরাও।

Advertisement

কথায় কথায় দাদা শ্রীহানকে জিজ্ঞাসা করে সে যেই শোতে খেলতে এসেছে তার নাম সে জানে কিনা! উত্তরে সে জানায় শোয়ের নাম দাদাগিরি আনলিমিটেড। কিভাবে এই শোয়ের নাম দাদাগিরি হয়েছিল সেই কথা তার কাছে জানতে চেয়েছিলাম সৌরভ গঙ্গুলী, সেই কথার উত্তরে শ্রীহান জানায় দাদা ছোটবেলায় ফুটবলার ছিল। তারপরে দাদার যখন আট বছর বয়স তখন তিনি তার দাদার ব্যাট বল চুরি করে ক্রিকেট খেলতে শুরু করেন। এই কথা শুনে রীতিমতো চমকে উঠেছিলেন দাদা। এরপর কথায় সম্মতি জানিয়ে তাকে বাকিটা বলতে বলে।

এরপরে আবার সে বলে, ব্যাট-বল চুরি করে ক্রিকেট খেলতে শুরু করার পর তিনি ক্রিকেটার হয়ে যান। যেহেতু তিনি দাদার ব্যাট-বল চুরি করে ক্রিকেট খেলতেন তাই তার নাম দাদা হয়। আর সেই দাদার সাথে গিরি যোগ করে এই শোয়ের নাম দাদাগিরি হয়েছে। রিহানের এমন সব কথা শুনে দাদা নিজেও স্তম্ভিত হয়ে যান। দর্শকরাও রীতিমত অবাক এই একরত্তির কথা শুনে।

Advertisement

শ্রীহান দাদাকে এও জানায়, সে বড় হয়ে বিজ্ঞানী হবে। যাদের মাথায় চুল নেই যাতে তা একদিনে গজিয়ে যায় কিংবা যাদের দাঁত নেই তাদের দাঁত ঠিক করে দেওয়ার জন্য এবং যারা খুব নাক ডাকে সেই নাকডাকা বন্ধ করার জন্য সে বিজ্ঞানী হবে। তার এই কথা শুনে দাদা বলে সে যেন দাদার সাথে যোগাযোগ রাখে।

সম্প্রতি জি বাংলার অফিশিয়াল পেজ থেকে সেদিনের এপিসোডের এই অংশটুকু শেয়ার করা হয়েছে। আর শেয়ার হতে না হতেই রীতিমতো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে সেটি। নেটিজেনদের অনেকেই শ্রীহানের কথা শুনে তাকে মজার ছলে ‘পাকা বুড়ো’ বলেছে। এছাড়া একাধিক মন্তব্য পরেছে সেই ভিডিওর কমেন্টবক্সে, যা দেখলেই বোঝা যাবে।

Related Articles

Back to top button