টলিউডবিনোদন

লাস্যময়ী অবতারে জয়া! বাংলাদেশের ‘সানি লিওয়ন’ নামে আখ্যা নেটিজেনদের



জয়া আহসান। বাংলাদেশের মাটিতে একের পর এক হিট সিনেমা অভিনয় ত করেছেন এরপর ভারতের মাটিতে এসেও বাজিমাত করেছেন সুন্দরী জয়া আহসান। দুই বাংলার জনপ্রিয়ের শীর্ষে স্থান দখল করে আছেন এই অভিনেত্রী। এপার বাংলায় মাত্র কয়েক বছরে অভিনেত্রী সৃজিত মুখোপাধ্যায়, কৌশিক গাঙ্গুলি,বিরশা দাসগুপ্ত, শিবপ্রসাদ নন্দিতা, অতনু সহ বহু প্রথম সারির পরিচালকের সাথে কাজ সেরে ফেলেছেন জয়া। ‘রাজকাহিনী’ ‘ বিসর্জন’ ‘কন্ঠ’, ‘রবিবার’ এর মতন ছবিতে কাজ করার পর, তিনি দর্শকদের ও পছন্দের অভিনেত্রীর তালিকায় চলে এসেছেন। অভিনয়ের জন্য পেয়েছে একাধিক পুরষ্কার।

জয়া বরাবরই অন্য ধাঁচের সিনেমা করার জন্য বিখ্যাত ঢালিউড আর টলিউডে। তিনি গল্পের ভাবনা থেকে চরিত্র নির্বাচন করেন বেশ ছেঁকে। বয়স প্রায় ৫০ ছুঁই ছুঁই কিন্তু নিজের রুপে ঘায়েল করেছেন পুরো টেলি ইন্ডাস্ট্রি। এই অভিনেত্রীকে যে প্রথম দেখবে কেউ বলতে পারবেননা এনার বয়স ৪৮। এই বয়সে এসে এখনও রূপের জাঁদুতে টেক্কা দিতে পারেন বহু নবাগত অভিনেত্রীদের।

দুই বাংলা মুগ্ধ তাঁর এই রূপের আগুনে। সামাজিক মাধ্যমে একের পর এক ছবি দিয়ে সর্বদা শিরোনামে থাকে। সামাজিক মাধ্যমে যথেষ্ট সক্রিয় অভিনেত্রী। তাঁর ফলোয়ার্স সংখ্যাও অজস্র। জয়ার ছবি শেয়ার হওয়া মানেই তাতে থাকে ভালোবাসার বন্যা। তবে অভিনেত্রীর ছবিতে যে একেবারে কখনো কোনো সমালোচনা বা ট্রোল্ড হয়না তা কিন্তু নয়। তবে সেইসব কটাক্ষ, নীতি পুলিশদের কটু কথা বলতে অভিনেত্রীর নিজেরই রুচিতে লাগে। জয়ার চাবুক ফিগারে নিমেষে ঝড় তুলতে পারেন এখনো বহু পুরুষ মনে। কিভাবে সকলের মনে রাজ করতে হয় তা অভিনেত্রী ভালো করে জানে।।

কখনো শাড়ি তো কখনো ওয়েস্টার্ন ড্রেসে কাবু করেছেন অভিনেত্রী। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেত্রী নিজের জিম লুক শেয়ার করেছেন। গোলাপি রঙের স্পোর্টস ব্রা পরে ছবি শেয়ার করে নেট দুনিয়াতে ঝড় তুললেন। এই ছবি গুলিতে স্পষ্ট শরীরের প্রতিটা খাঁজ। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, অভিনেত্রীর নির্মেদ পেট, টোনড ফিগারে গায়ের জ্যাকেটটি ধরে রেখেছেন হাতে। ক্যপশানে লিখলেন, ‘কখনও ঠান্ডা, কখনও বন্য! আমি দরকারে দুই রূপেই ধরা দিতে পারি’। অনেকে এই ছবির প্রশংসা ও করেছেন। আর তাতেই এউ অভিনেত্রীকে বলি অভিনেত্রী সানি লিওনের সঙ্গে তুলনা করেছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে জয়ার এই জিম লুক। কেউ কেউ আবার নিন্দা করতে ভোলেননি। একজন লিখেছেন, তাঁর জয়াকে ‘আসাধারণ লাগছে’। আবার আরেকজনের মত, ‘জয়া এবং তাঁর পুরো পরিবার নষ্ট’ হয়ে গিয়েছে। অনেকে বয়স নিয়ে কটাক্ষ করতে ভোলেননি। তবে এবারে সেই সব নিয়ে মাথা ঘামায়নি অভিনেত্রী।

Related Articles

Back to top button