সৌন্দর্যজীবনযাপন

Pimple Remedy: গোলাপ জলের সঙ্গে এই জিনিসটি মিশিয়ে লাগান, ব্রণ দূর হবে, মুখ ফুটে উঠবে Katrina Kaif এর মতো

×
Advertisement

বর্তমানের কর্মব্যস্ত জীবনে প্রতিদিন নিয়ম করে নিজের এবং ত্বকের যত্ন নেওয়া সম্ভব হয় না। তবে সম্ভব না হলেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে নিতেই হয়। আর তা নাহলে ত্বক নিজের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলে। দেখা দেয় নানা সমস্যা। সেক্ষেত্রে ব্রণর ও চোখের তলায় কালি পড়ে যাওয়ার সমস্যা অন্যতম। তবে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে গোলাপজল ভীষণভাবে কার্যকরী। গোলাপজল সাধারণত কোনরকম প্রভাব ছাড়াই ত্বকের একাধিক সমস্যা দূর করে দিতে পারে। তবে ত্বকে কিভাবে প্রয়োগ করবেন এটি? পদ্ধতি জানুন।

Advertisement

পদ্ধতি:

১) অ্যালোভেরা ও গোলাপজল: গোলাপজল ও অ্যালোভেরা দুটি জিনিসই যেকোনো ধরনের ত্বকের জন্য খুব উপকারী। এই দুটি জিনিসই ত্বকের উপর আলাদাভাবে কোন ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে না। যদি একটি পাত্রে অ্যালোভেরার সাথে গোলাপ জল একসাথে মিশিয়ে সেটি মুখে দিনে দুই থেকে তিনবার লাগানো হয় তাহলে ত্বকের নানা সমস্যা দূর হবে। এটি লাগানোর পর ৩০ মিনিট রেখে দিতে হয়, তারপর মুখ ধুয়ে নিতে হয় ভালো করে। ব্রণর পাশাপাশি চোখের তলায় কালি পড়ার সমস্যাও দূর হয় অ্যালোভেরা ও গোলাপজলের গুনে। পাশাপাশি ফেরে ত্বকের উজ্জ্বলতাও।

Advertisement

২) মুলতানি মাটি ও গোলাপজল: মুলতানি মাটির সাথে গোলাপজল মিশিয়ে যদি ত্বকে লাগানো যায় তাহলে, তা মিটিয়ে দিতে পারে ত্বকের হাজারো সমস্যা। ট্যানের পাশাপাশি ব্রণর সমস্যাও মেটাতে পারে এই প্রলেপ। মুলতানি মাটি ত্বক মসৃণ করতেও সহায়তা করে থাকে।

৩) চন্দন ও গোলাপজল: যেকোনো ধরনের ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দূর করতে চন্দন অত্যন্তভাবে কার্যকরী, সেকথা অবশ্য আলাদাভাবে বলার অপেক্ষা রাখে না। কারণ সেই পুরনো আমল থেকেই ত্বকের নানা সমস্যা মেটাতে অনেকক্ষেত্রে চন্দনের ব্যবহার হয়ে আসছে। তবে চন্দনের সাথে গোলাপজল মিশিয়ে যদি সেটি ত্বকের উপর প্রয়োগ করা সম্ভব হয় তাহলে, তা ত্বকের নানা সমস্যা দূর করে দিতে পারে। ব্রণর সমস্যা দূর করার পাশাপাশি ত্বকের চামড়া টানটান রাখতে ও ত্বকের কোমলতা বজায় রাখতে খুবই কার্যকরী এটি।

৪) গোলাপ জল: শুধুমাত্র গোলাপ জলও ত্বকের জন্য ভীষণ উপকারী। একটি তুলো কিংবা সুতির কাপড় দিয়ে ধীরে ধীরে সারা মুখে যদি প্রতিদিন দুই থেকে তিনবার লাগানো যায় তাহলে, তা ত্বকের কোমলতা ফিরিয়ে আনে। পাশাপাশি ত্বকের উজ্জ্বলতা বজায় রেখে দাগমুক্ত রাখে ত্বককে।

৫) গোলাপ জলে ম্যাসেজ: শুধুমাত্র গোলাপ জলের সাহায্যে যদি গোটা মুখে ম্যাসেজ করা যায় তাহলে, ব্রণর সমস্যা আরাম পায়। ধীরে ধীরে কমতে থাকে এই সমস্যা। পাশাপাশি রক্ত চলাচল স্বাভাবিক থাকে, যা ত্বকের একাধিক সমস্যা দূর করতে সক্ষম।

Related Articles

Back to top button