টলিউডফুটবলবিনোদন

Golondaaj: ভারতীয় ফুটবলের সঙ্গে বাঙালির আবেগ মিলেমিশে পুজোর বক্স অফিস কাঁপাতে তৈরি ‘গোলন্দাজ’ 

বাঙালি মানেই খাদ্যরসিক। বাঙালী মানেই কবিতা আর বাঙালী মানেই ফুটবল। ফুটবলের সঙ্গে বাংলার সম্পর্ক আবেগের। এবার বড় পর্দায় এমনই ফুটবলের সাথে আবেগের চরিত্র ফুটিয়ে তুলবেন জনপ্রিয় টলিউড অভিনেতা দেব। এই বছর নববর্ষেই মুক্তি পেয়েছিল দেবের বহুপ্রতীক্ষিত ছবি ‘গোলন্দাজ’-এর টিজার। এবার করোনা পরিস্থিতি একটু সামাল দিতেই আসন্ন দুর্গাপুজোয় মুক্তি পেতে চলেছে এই সিনেমা। তবে মুক্তি পেতে দিন কয়েকের অপেক্ষা তার আগেই বহু প্রতীক্ষিত এই ছবির ট্রেলার মুক্তি পেল নেট দুনিয়াতে। ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিচালিত ছবি ‘গোলন্দাজ’ এর ট্রেলার ইতিমধ্যেই এস ভি এফের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে স্ট্রিম হচ্ছে।

২ মিনিট ৫১ সেকেন্ডের এই ট্রেলার নেট দুনিয়ায় রীতিমতো হইচই ফেলে দিয়েছে। ইতিমধ্যে ট্রেলার সকলেই বেশ পছন্দ করছেন। পুজোর সময়ে বাংলার দর্শকদের কাছে এক বাম্পার অফার এই গোলোন্দাজ। উনবিংশ শতাব্দীর শেষদিকে নিজের দেশের মাটিতে ইংরেজদের সঙ্গে ফুটবল খেলায় তাঁদের হারানোর শপথ নিয়েছিলেন নগেন্দ্রপ্রসাদ সর্বাধিকারী। আর এই ঐতিহাসিক চরিত্রেই এবার পর্দায় ফুটিয়ে তুলবেন সুপারস্টার দেব। ট্রেলার মুক্তির কথা গত বৃহস্পতিবারই নিজের অনুগামীদের জানিয়েছিলেন দেব।

ট্রেলারের প্রথমেই ১৮৭৯ কলকাতা। মাত্র ১০ বছর বয়সে ময়দানে গোরা সৈন্যদের ফুটবল খেলা দেখে আকৃষ্ট হয়েছিলেন বীর বাঙালি নগেন্দ্রপ্রসাদ। এরপরেই সে ঠিক করে স্বৈরাচারী ইংরেজদের হারাবেন এই ফুটবল খেলা দিয়ে। সর্বাধিকারীর অদম্য জেদের কাহিনি পর্দায় ফুটিয়ে তুলছেন ধ্রুব। ছবির ২.৫১ সেকেন্ডের ঝলক দেখেই তা বোঝা গেল পরিচালক মশাই এক শক্তোপোক্ত টিম তৈরি করেই মাঠে নেমেছে ‘গোলন্দাজ’। দেশপ্রেম ও ফুটবলের আবেগকে চিত্রনাট্যের মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলতে ব্রতী হয়েছেন পরিচালক মশাই

নগেন্দ্রপ্রসাদ সার্বাধিকারীর জীবন আর ঐতিহাসিক এগারো জন সংগ্রামীর উপর ভিত্তি করে এই ছবি। আর ফুটবল প্রেমীদের কাছে এক বিশেষ আবেগ হল এগারো। এই ছবিতে দেখানো হয়েছে তৎকালীন ভারতীয় ফুটবলের সংগ্রাম। উচ্চাকাঙ্ক্ষী ব্রিটিশদের সঙ্গে লড়াই করার এবং ভারতীয়দের একটি নিজের পরিচয় তৈরি করার সংগ্রাম। গত রবছর আগাস্ট মাসে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। তবে সেই সিদ্ধান্তে বাধ সাধে করোনা। তবে আর বেশি দেরী নয় দুর্গাপুজোতেই সকলের মুখে হাসি ফোটাতে আসছে গোলন্দাজ।

এই ছবিতে অভিনেত্রী ইশা সাহাকে দেখা যাবে নগেন্দ্রপ্রসাদ সর্বাধিকারীর স্ত্রী কমলিনীর ভূমিকায়। কমলিনী দেবী ছিলেন নগেন্দপ্রসাদের অনুপ্রেরণা। দেবের বাবার সূর্য কুমার সর্বাধিকারীর চরিত্রে দেখা যাবে শ্রীকান্ত আচার্যকে। স্বাধীনতা সংগ্রামী ভার্গবের চরিত্রে অভিনয় করেছেন অনির্বাণ ভট্টাচার্য অন্যদিকে ইন্দ্রাশিস রায়ের দেখা মিলবে জিতেন্দ্রর চরিত্রে। নগেন্দ্র প্রসাদের ভাই তথা বন্ধু বিনোদের চরিত্রে অভিনয় করছেন জন ভট্টাচার্য। সঙ্গীত পরিচালনা করছেন বিক্রম ঘোষ। ১০ অক্টোবর দেশব্যাপী বাংলা ও হিন্দি দুই ভাষাতে এই ছবি মুক্তি পেতে চলেছে।

 

Related Articles

Back to top button