বাংলা সিরিয়ালবিনোদন

সাত্যকিকে ভুলে, উর্মির জীবনে নতুন ভালোবাসার মানুষ নিজেই জানালেন সে কথা

×
Advertisement

জি বাংলায় উর্মি আর সাত্যকির বিয়ে, বৌভাত আর রিসেপশান নিয়ে কয়েক সপ্তাহ ছিল বেশ জমজমাট। এবার নর্থ পোল আর সাউথ পোলের সংসার কেমন হয় সেটাই দেখার। দুজন যতই ঝগড়া করুক কিন্তু একজন বিপদে পড়লে ছুটে আসে অন্যজন৷ বিয়ে রিসেপশান পর্ব মিটে গিয়েছে। উর্মির সরলতা দিয়ে সাত্যকির পরিবারের সকলের মন জয় করে নিয়েছে।

Advertisement

প্রেম তো দূরের কথা এখনো সেভাবে ভালো বন্ধুত্বই গড়ে ওঠেনি এই পথ যদি না শেষ হয় ধারাবাহিকের নায়ক নায়িকা। তবে বিয়ের আগে হোক কিংবা পরে উর্মির প্রতি অত্যন্ত কেয়ারিং তাঁর সাত্যকি বাবু, আবার সাত্যকিকে ছাড়া কিছুই যেন ঠিক করতে পারেনা উর্মি। তবে বিয়ের পর্ব শেষ হতেই স্বামীকে অল্প অল্প ভালো লাগতে শুরু করেছে উর্মির। এর মধ্যেই সবে সবে সাত্যকি বাবুকে নিয়ে পসেসিভ হতে শুরু করেছেন চঞ্চল উর্মি। একে অপরের জন্য দুজনের চোখের ভাষা আর অল্প ভালোলাগা শুরু হতে চলেছে।

তবে এর মধ্যেই নিজের স্বামীকে ভুলে ভালোবাসার জন্য অন্য মানুষ পেয়ে গেলেন উর্মি। সাত্যকি কে ছেড়ে তাঁরই বাড়িতে সেই সঙ্গীকে নিয়েই বেশি খুশি উর্মি। পাশাপাশি আবার সাত্যকি বাবুকে আর দরকার নেই সেটাও বুঝিয়ে দিলেন তিনি। ভাবছেন তো হঠাৎ করে সাত্যকি ও উর্মির জীবনে তৃতীয় ব্যাক্তিটির অনুপ্রবেশ ঘটালো কে? না তিনি নতুন কেউ নন, আগেও সাত্যকি আর উর্মির মাঝে বাসা বেঁধেছিলেন। ইনি আর কেই নয় ধারাবাহিকে উর্মির সতীন রিনি।

Advertisement

রিনি যে কিনা নিজের টুকাই দার সাথে কাউকে ভাগ করে নিতে চায়না। টুকাই দার বিয়ে হয়ে গেলেও উর্মিকে সরাতে চায় এই রিনি। তার জন্য প্রাণপণে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে এখন এও রিনিই হল উর্মির জীবনের আসল ভালোবাসার মানুষ। আবার রিনিও নিজের টুকাই দাকে ভুলে উর্মির কাছে চলে গেলেন। বা এদের মিল বাস্তবে এখনো হয়নি পুরোটাই পর্দার পিছনে৷ রিলে শত্রু হলেও বাস্তবে দুজনে খুব ভালো বন্ধু।

বাস্তবে অন্বেষা এবং মিশমি দুজনেই খুব ভালো বন্ধু, একে অপরকে খুব ভালোবাসেন। তাই ধারাবাহিকের শুটিংয়ের মাঝে একে অপরের সাথে কোয়ালিটি সময় অতিবাহিত করেন। এরকমই শ্যুটিং এর মাঝে বিছানায় শুয়ে একে অপরকে জড়িয়ে ধরে ছবিও পোস্ট করে মিশমি এবং অন্বেষা। আর সাথে লিখলেন, সাত্যকি এবং টুকাই দা কে আর দরকার নেই তাদের। এই দুই বন্ধুর ভালোবাসা আর খুনসুটি দেখে নেট নাগরিকরা ভালোবাসা জানিয়েছেন। নিমেষে ভাইরাল হয় এই পোস্ট।

Related Articles

Back to top button