নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“পুলিশের বাপের জায়গা নাকি!”, সভার অনুমতি না পেয়ে পুলিশকে একহাত নিলেন দিলীপ ঘোষ

Advertisement

পছন্দ মতো জায়গায় সভা করার অনুমতি না দেওয়ায় পুলিশকে বাক্যবাণ ত্যাগ করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে সভা করেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তার বক্তব্য,”পুলিশ বলেছে এই মাঠে না কি পা দেওয়া যাবে না। পুলিশ অফিসারদের বলি তোর মাঠ নাকি এটা? যে আধিকারিকরা আইন হাতে নিয়ে বিজেপিকে থামানোর চেষ্টা করা হচ্ছে, জনগণকে কষ্ট দিচ্ছেন, তার পরিণতি জেনে কাজ করুন। নাম লিখছি, নেতা অফিসার যেই হোক না কেন, কাউকেই দেওয়া হবেনা রেহাই। পুলিশ অফিসাররা ভাবছেন যে তারা যা ইচ্ছা তাই করবেন, আর ‘দিদি’ বাঁচাবেন। দিদিকেই কে বাঁচাবে তার ঠিক নেই। ঈশ্বরও এইবার দিদিকে বাঁচাতে পারবেন না।”

এই সভাতে দিলীপ ঘোষ বলেন,”এখন সেখানেই সভা করা হচ্ছে যেখানে মানুষের উপর অত্যাচার করা হচ্ছে বেশি। কিন্তু সভা করার জন্য জায়গা দেওয়া হচ্ছেনা। কোনও মাঠ পাওয়া যায়নি। বাধ্য হয়ে আমরা এরম ছোট স্থানে সভা করছি। যত লোক বসে আছেন তাদের চেয়ে বেশি লোক রয়েছে রাস্তায় দাঁড়িয়ে।” এর পরেই দিলীপ হুঁশিয়ারি দেন,”যা করছেন করুন, কিন্তু সেই দিন বীরভূমে দেখেছেন তো কি হয়েছে? আমাদের কর্মীদের ওপর আক্রমণ করা হয়েছিল, গুলি চালানো হয়েছিল। আমি আগেই কর্মীদের বলেছিলাম কাঁচা বাঁশ নিয়ে আসতে, তারা নিয়ে এসেছিল। তারপরে রাস্তায় দেলে কীভাবে মেরেছিল দেখেছিলেন তো? এইবার সেই দিনই ফিরে আসছে।” প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কেতুগ্রামে যে মাঠে সভা করার কথা ছিল, তার অনুমতি পাওয়া যায়নি বলে দাবী করেছে গেরুয়া শিবির।

তার সাথেই আসন্ন বিধানসভা ভোট নিয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন,”অনেকে বলেছেন ভোট দেওয়া যাবে তো? আমরা বলেছি, আপনি ভোট দেবেন, সেই ব্যবস্থা করে দেব আমরা। দিল্লির পুলিশ নিয়ে আসা হবে। রাজ্যের পুলিশকে যেত দেওয়া হবেনা বুথের সামনে। দূরে চেয়ার পেতে দেব, বসে দেখবে ভোট। ভিতরে থাকবে কেন্দ্রের পুলিশ। ভোট দেবেন চলে আসবেন। ২০১১ এর মতো ভোট হবে ২০২১ এ আবার।”

Tags

Related Articles

Back to top button