টলিউডবাংলা সিরিয়ালবিনোদন

Desher Mati: সেট জুড়ে কান্নাকাটি! লাইভে এসে মাম্পি বললেন, ‘তোমার জন্য খুব মনখারাপ করবে রাহুলদা’

চলতি বছরের শুরুতে স্টার জলসায় এক্কেবারে যৌথ পরিবারের ভিন্নধর্মী কাহিনি নিয়ে শুরু হয়েছিল ‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিক। এই ধারাবাহিকের প্রত্যেক কলাকুশলী নিজেদের অভিনয় দিয়ে দর্শকদের মনে পাকাপাকি ভাবে জায়গা করে নিয়েছে। এই ধারাবাহিকে নোয়া কিয়ানের পাশাপাশি রাজা মাম্পির প্রেম কাহিনিও দারুন জনপ্রিয়তা পেয়েছে, বরং নোয়া কিয়ানের থেকে একটু বেশিই পেয়েছে। রাজা-মাম্পির চরিত্র এতটাই জনপ্রিয়তা পায় যে এদের নাম রাম্পি ফ্যান পেজ খোলা হয়। রাজা-মাম্পির অনুরাগীরা গর্ব করে নিজেদের রাম্পিয়ান ও বলতে থাকে।

এই ধারাবাহিকে রাজা আর মাম্পির চরিত্রে অভিনয় করছেন রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায় রুকমা রায়। বেশ কয়েকদিন ধরে গুঞ্জন চলছিল টিআরপি কম থাকায় ‘দেশের মাটি’ শেষ হয়ে যাবে। অবশেষে দর্শকদের আশঙ্কা সত্যি করে শেষ হয়ে যাচ্ছে স্টার জলসার জনপ্রিয় এই ধারাবাহিক। দুদিন আগেই সাড়ে ছ’টার স্লটে ‘খুকুমণি হোম ডেলিভারি’-র প্রোমো দেখানো হয়েছিল৷ অবশ্য তাতে অনেকেই ভেবেছিলেন ‘দেশের মাটি’-র সময় পরিবর্তিত হয়ে অন্য স্লটে হবে। কিন্তু না পশেষ অবধি তাঁদের ধারণাই সত্যি হল। গত সপ্তাহে ধারাবাহিক শেষ হওয়ার কথা লাইভে এসে নিজেই জানিয়েছিলেন রাজা মাম্পি।

এই সপ্তাহে শেষ সম্প্রচারিত হবে দেশের মাটি ধারাবাহিক। মাত্র ২৩৫ পর্বের মধ্যেই ইতি টানছে এই ধারাবাহিকে। আগের দিন রুকমা জানিয়েছিলেন সব পথচলার একদিন শেষ থাকে। গতকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার ছিল রাজা মাম্পির শেষ শ্যুটিং। এইদিন বড্ডো আবেগপ্রবণ হয়ে উঠেছিলেন দুজনে। শেষ শট দিয়ে এসে এই দিন মেক আপ রুমে রাজা মাম্পি হয়ে শেষবার নিজের অনুরাগীদের কাছে। হয়তো এরপর আসবে লাইভে রাজা মাম্পি হয়ে আর নয়।

দেশের মাটি সেটে শেষ লাইভে এসে রুকমা এদিন সকলের সামনে স্বীকার করেন, ‘‘আর দেখতে পাব না! তোমার জন্য খুব মনখারাপ করবে রাহুলদা!’’ এ ভাবেই শেষ হয়েও হল না ‘রাম্পি’র পথচলা। এদিন দুজনের কথা বলতে বলতে বারেবারে চোখের কোণা ভিজেছে জলে। পর্দার রাজা প্রায় কাঁদো কাঁদো অবস্থায় এদিন আরো বললেন, ‘‘আগামী কাল সকাল থেকে রাজা-মাম্পি আর আমাদের সঙ্গে থাকবে না’’। প্রিয় অনুরাগীদের আবদারে সকলের প্রিয় ‘মাম্পি’ গেয়েছেন ধারাবাহিকের মূল সঙ্গীত। নচিকেতা চক্রবর্তীর রোম্যান্টিক গান ‘নীলাঞ্জনা’।

শুধু রাজা মাম্পি নয় এদিন এই ধারাবাহিকের সাথে যুক্ত সকলে আবেগপ্রবণ হয়ে উঠেছিলেন৷ শট শেষে সবার জন্য ছিল ‘দেশের মাটি’-ছবি আঁকা স্পেশ্যাল কেক। আর এই কেক কেটে শেষ দিন উদযাপন করলেন। আর সেট জুড়ে সকলেই কান্নাকাটি করেন। রাহুলের জানান ‘‘এই দিন সেটের দুটো বাচ্চা বাচ্চা ছেলে-মেয়ে রুকমা আর দিব্যজ্যোতি দত্ত ওরফে ‘কিয়ান’ একে অন্যকে জড়িয়ে ধরে হাপুস নয়নে কেঁদেছে।’’ এইদিন কেঁদেছেন রাহুল নিজেও। সবশেষে রাহুল বলেছেন, ‘এর পর বিষণ্ণ দিন বাজে না মনোবীণ, অবসাদে ঘিরে থাকা সে দীর্ঘ দিন! অনুরাগীদের একটাই আবদার সকলের প্রিয় রাম্পি যেন অন্যভাবে ফিরে আসে প্রিয় দর্শকদের কাছে। এদিন চোখ ভিজেছে দেশের মাটি অনুগামীদের ও।

Related Articles

Back to top button