নিউজরাজ্য

নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি জেলার পুজোর উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী

Advertisement

কলকাতা: করোনা পরিস্থিতির মধ্যে মা আসছেন। পুজো আসতে আর মাত্র পাঁচদিন বাকি। আর তাই করনাবিধি মেনে বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গোৎসবে মেতে উঠতে চলেছে রাজ্যবাসী। ইতিমধ্যেই বেশ কিছু পুজোর উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে। বেশিরভাগ পুজোরই উদ্বোধন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গতকাল, বুধবার আহিরিটোলা সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির পুজো উদ্বোধন করতে দেখা গিয়েছে মুখ্যমন্ত্রীকে। আর আজ, বৃহস্পতিবার নবান্ন থেকে ১২টি জেলার ১১০টি পুজোর ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করলেন মমতা।

হুগলি সহ আরও অন্যান্য জেলার ১১০টি পুজোর ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। করোনা পরিস্থিতির কারণে এই সব জেলায় গিয়ে গিয়ে উদ্বোধন করা সম্ভব নয়। তাই ভার্চুয়াল জগতকেই উদ্বোধনের জন্য বেছে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। নবান্নের সেক্রেটারিয়েট থেকে সরাসরি এই উদ্বোধনের অনুষ্ঠান করা হয়। প্রত্যেকটি ক্লাবের কর্তারাও এদিন উপস্থিত ছিলেন নিজ নিজ ক্লাব প্রাঙ্গণে। প্রথমে শঙ্খ বাজিযে এবং পরে মা দুর্গাকে ভার্চুয়ালি বরণ করে নিয়ে পুজো মণ্ডপগুলির উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

ভার্চুয়ালি পুজো উদ্বোধন করতে গিয়ে মমতা বলেন, ‘সকলকে আমি আমার শারদ শুভেচ্ছা জানাই। হুগলি হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের একটি ঐতিহাসিক জেলা। অন্যান্য জেলার পাশাপাশি হুগলিতে অনেক ঐতিহাসিক স্থান রয়েছে। যেমন, রয়েছে ব্যান্ডেল চার্চ। হুগলি সহ অন্যান্য জেলার সকলের পূজো যাতে ভাল কাটুক, এই কামনাই করি। তবে দেখবেন পুজোয় আনন্দ করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হবেন না। শরীর খারাপ হলে বা অন্যান্য উপসর্গ হলেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন। আর যদি শরীর খারাপ নাও হয়, তাও মাস্ক বাধ্যতামূলকভাবে পরবেন। আমি ক্লাবগুলোকে বলব, যদি সম্ভব হয় তাহলে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখবেন। জানি ক্লাবগুলোর অনেক ক্ষেত্রে অসুবিধা হয়। তবুও অনেক ক্লাব এগুলি করে থাকে। সুতরাং, সাবধানে সাবধানতা অবলম্বন করে পুজো কাটান। ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন।’ এভাবেই নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি পুজো উদ্বোধন করার সময় রাজ্যবাসী উদ্দেশ্যে এমন বার্তাই দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

Tags

Related Articles

Back to top button