আন্তর্জাতিকনিউজ

চিনের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন নিরাপদ এবং অ্যান্টিবডি তৈরিতে সক্ষম, দাবি চিনা বিশেষজ্ঞদের

Advertisement

বেজিং: সারা বিশ্ব করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ব্রিটেন, ভারত, রাশিয়া এমনকি করোনার আঁতুড়ঘর চিনও এই কাজে মনোনিবেশ করে চলেছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত আন্তর্জাতিক বাজারে কোনও করোনার ভ্যাকসিন সর্বসাধারণের জন্য আত্মপ্রকাশ ঘটায়নি। তবে চিনের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন অর্থাৎ করোনাভ্যাক নিরাপদ এবং অ্যান্টিবডি তৈরিতে সক্ষম বলে দাবি করেছে বেজিং সরকার।

ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে ১৮ থেকে ৫৯ বছরের মধ্যে স্বেচ্ছাসেবকদের শরীরে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছিল। আর সেখানে পরীক্ষামুলকভাবে সফলতা মিলেছে বলে চিনের বিশেষজ্ঞরা দাবি করেছেন। চিনের একটি জার্নালে প্রকাশিত এক রিপোর্ট বলছে, ২৮ দিনের মধ্যে ১৪ দিন অন্তর এই ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ প্রয়োগ করা হলে, তা অ্যান্টিবডি তৈরি করতে সক্ষম হয়। যার ফলে করোনাকে অতি সহজেই মোকাবিলা করা যায়।

জানা গিয়েছে, এই ভ্যাকসিন যে সকল স্বেচ্ছাসেবকদের শরীরে প্রয়োগ করা হয়েছিল, তাদের কোনওরকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। এমনকি পরবর্তী সময়ে করনায় তারা আক্রান্ত হয়েছেন, এমন কোনও ইতিহাসও নেই। সুতরাং, সব মিলিয়ে বিশ্বের দরবারে নিজেদের তৈরি করোনাভ্যাক নামক করোনা ভ্যাকসিনকে সবচেয়ে বেশি নিরাপদ বলে দাবি করেছে চিন।

Tags

Related Articles

Back to top button