বলিউডবিনোদন

বাস্তব জীবনে কম গ্ল্যামারাস নয় ‘ভাবিজি ঘর পার হ্যায়’ সিরিয়ালের ভাবীরা, এই ছবিগুলো তার প্রমাণ

২০১৫ সালে শুরু হয়েছিল "ভাবিজি ঘর পার হ্যায়" সিরিয়ালটি

×
Advertisement

ভারতীয় দর্শকদের মধ্যে সিনেমা দেখার পাশাপাশি সিরিয়াল দেখার ট্রেন্ড বেশ ভালই রয়েছে। তাইতো একাধিক ভাষাতে প্রতিদিন সন্ধ্যাবেলা প্রত্যেকের বাড়িতেই টেলিভিশনে চলে কোনো না কোনো ধারাবাহিক। কমেডি সিরিয়াল হিসেবে একদিকে যেমন ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে, “তারক মেহতা কা উল্টা চশমা”, ঠিক অন্যদিকে বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে “ভাবিজি ঘর পার হ্যায়” সিরিয়ালের। এই সিরিয়ালটা শুরু হয়েছিল ২০১৫ সালে। তারপর প্রায় ৭ বছর পেরিয়ে গেছে। এখনও কমেডি শো হিসাবে প্রত্যেকের মনের মনিকোঠায় সযত্নে তোলা রয়েছে এই ধারাবাহিক।

Advertisement

শুরু থেকেই এই ধারাবাহিকের স্ক্রিপ্ট এবং সেইসাথে তারকাদের অসাধারণ অভিনয় জমিয়ে তুলেছিল সিরিয়ালটিকে। কমেডি শো হিসাবে ভারতে এই ধারাবাহিক একদম প্রথম তালিকায় থাকবে সারাজীবন। দীর্ঘ সময় ধারাবাহিকে বেশকিছু অভিনেতা-অভিনেত্রীর বদল হলেও, শোয়ের জনপ্রিয়তাতে এক বিন্দুও আঁচ পড়েনি। পুরনো আঙ্গুরী ভাবি শিল্পা শিন্ডের জায়গায় ধারাবাহিকে নতুনভাবে এসেছিলেন শুভাঙ্গী আত্রে। এছাড়া অনিতা ভাবীর চরিত্রে সৌমা ট্যান্ডনের পরিবর্তে নতুন করে এসেছিলেন নেহা পেন্ডসে। এছাড়া এই সিরিয়ালে নতুনভাবে এন্ট্রি নিয়েছেন বিদিশা শ্রীবাস্তব।

Advertisement

এই ধারাবাহিকে সব “ভাবিজি” কে অর্থাৎ আঙ্গুরি ভাবী এবং অনিতা ভাবিকে সর্বদা শাড়িতেই দেখা যায়। বলা ভালো, সিরিয়ালে ট্রেডিশনাল এবং বেশ লাজুক হয়ে চরিত্রের সাথে মানিয়ে চলেন অভিনেত্রীরা। কিন্তু আপনি শুনলে অবাক হবেন রিয়েল লাইফে এই সমস্ত ভাবিদের ছবি দেখলে চক্ষু চড়কগাছ হতে বাধ্য আপনার। ট্রাডিশনাল তো দূরের কথা, ভাবীরা বেশিরভাগ সময় ছোটখাটো পোশাক পরেই সোশ্যাল মিডিয়ার দুনিয়াতে ছবি পোস্ট করে থাকেন।

শিল্পা শিন্ডে, সৌম্য ট্যান্ডন, নেহা পেন্ডসে, শুভাঙ্গী আত্রে বা বিদিশা শ্রীবাস্তব, যারই সোশ্যাল মিডিয়াতে উঁকি মারা হোক না কেন, সব জায়গাতেই ‘ভাবিজি’ দের লাস্যময়ী হট ছবির দেখা মেলে। বিশেষ করে কিছুদিন আগে বিদিশা শ্রীবাস্তবের বিকিনি লুক দেখে ঘুম উড়ে গেছিল লাখ লাখ নেটিজেনের। প্রত্যেক ভাবীর প্রচুর পরিমাণে ফ্যান ফলোয়ার রয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার দুনিয়াতে। তাই তো তাঁরা ছবি পোস্ট করলেই চোখের পলকে তা ইন্টারনেট দুনিয়ার আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে যায়।

Related Articles

Back to top button