বলিউডবিনোদন

হট প্যান্ট পরে প্রেমিকের কোলে বসে আদর খাচ্ছেন অঙ্কিতা, তুমুল ভাইরাল সেই ছবি

Advertisement

কিছুদিন আগেই অঙ্কিতা ছত্রিশতম জন্মদিন পালন করেছেন অঙ্কিতার পরিবার ও তাঁর হবু স্বামী ভিকি জৈন। এরপর গোয়ায় ছুটি কাটাতে গিয়েছেন অঙ্কিতা ও ভিকি। সঙ্গে রয়েছে তাঁদের দুজনের পরিবার। গোয়া ট্রিপের কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন অঙ্কিতা। সেই ছবিগুলিতে অঙ্কিতা ও ভিকিকে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা যাচ্ছে।  অঙ্কিতা যথেষ্ট রিল‍্যাক্সড রয়েছেন। তাঁর পরনে রয়েছে হট প‍্যান্ট ও লাল রঙের শার্ট।  কিন্তু অঙ্কিতা তাঁর ছবি শেয়ার করলেই তাঁকে ট্রোল করা হচ্ছে। নেটিজেনরা তাঁকে বলছেন, সুশান্তের কথা বোধ হয় ভুলে গেছেন অঙ্কিতা। এই কারণেই সুশান্তের মৃত্যুর কয়েক মাসের মধ্যেই তিনি পার্টি করে বেড়াচ্ছেন। কিন্তু নেটিজেনরা নিজেরা বোধ হয় ভুলে গেছেন, অঙ্কিতার সঙ্গে সুশান্তের বিয়ে ঠিক হয়ে যাওয়ার পর সেই বিয়ে ভেঙেছিলেন সুশান্ত নিজেই। অঙ্কিতাকে সেদিন অহঙ্কারের বশে ছেড়ে এগিয়ে গিয়েছিলেন সুশান্ত। সেদিন নেটিজেনদের কেউ প্রতিবাদ করেননি। কিন্তু আজ যখন অঙ্কিতা নিজের জীবন নিজের মতো করে বাঁচতে চাইছেন, তখন তাঁকে ট্রোল করা শুরু হয়েছে।

সম্প্রতি জনপ্রিয় একটি হিন্দি চ্যানেলের অ্যাওয়ার্ড সেরেমনিতে প্রয়াত অভিনেতা  সুশান্ত সিং রাজপুতকে ট্রিবিউট দিয়ে ‘পবিত্র রিস্তা’র টাইটেল ট্র‍্যাক ও সুশান্ত অভিনীত ফিল্মের গানের সঙ্গে ডান্স পারফরম্যান্স করেন অঙ্কিতা। ডান্স পারফরম্যান্সের শেষে অঙ্কিতা বলেন, সুশান্ত ও তাঁর সম্পর্ক অমর।

জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘পবিত্র রিস্তা’র মাধ্যমে অভিনেত্রী হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন অঙ্কিতা লোখান্ডে। এই সিরিয়ালে অঙ্কিতার অভিনয় প্রশংসিত হয়। ‘পবিত্র রিস্তা’-য় সুশান্ত-অঙ্কিতা জুটি জনপ্রিয়তা লাভ করে। এরপর অঙ্কিতা ডান্স রিয়েলিটি শো ‘ঝলক দিখলা যা’য় প্রতিযোগী হিসাবে যোগদান করেন। ‘ঝলক দিখলা যা’য় বিজয়ী না হলেও অঙ্কিতা সেরা নৃত্যশিল্পীর অভিধা অর্জন করেন। সম্প্রতি অঙ্কিতা কঙ্গনা রাণাওয়াত প্রযোজিত ও অভিনীত ফিল্ম ‘মণিকর্ণিকা’য় ঝলকারী বাঈ-এর চরিত্রে অভিনয় করেন। ঐতিহাসিক দিক থেকে ঝলকারী বাঈ চরিত্রটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্র। সিপাহী বিদ্রোহের সময় অন্তঃসত্ত্বা ঝলকারী বাঈ নিজের প্রাণ বিসর্জন দিয়ে ঝাঁসির রানী লক্ষ্মীবাঈ-এর প্রাণ রক্ষা করেছিলেন। ‘মণিকর্ণিকা’ ফিল্মে ঝলকারী বাঈ-এর চরিত্রে অঙ্কিতা লোখান্ডের অভিনয় বলিউড ফিল্ম ক্রিটিকদের কাছে অত্যন্ত প্রশংসনীয় হয়। এমনকি কঙ্গনা রাণাওয়াত অঙ্কিতাকে শক্তিশালী অভিনেত্রী হিসেবে বর্ণনা করেন। এই মুহূর্তে অঙ্কিতার হাতে বেশ কিছু ফিল্মের অফার থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে সেগুলির শুটিং পিছিয়ে গেছে।

‘পবিত্র রিস্তা’র সেটে বন্ধুত্ব হয়েছিল অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত ও অঙ্কিতা লোখান্ডের। তাঁদের অনস্ক্রিন প্রেম অফস্ক্রিনে পরিণত হতে বেশি সময় লাগেনি। সুশান্ত ও অঙ্কিতা একসময় লিভ-ইন শুরু করেন। অঙ্কিতা সুশান্তের পছন্দকে সবসময় গুরুত্ব দিতেন। তাঁদের ঘর সাজানো হয়েছিল সুশান্তের পছন্দমতো। শুটিং না থাকলে সুশান্তের পছন্দের রান্না করতেন অঙ্কিতা। সুশান্ত বই পড়তে ভালোবাসতেন। সুশান্তের জন্য অঙ্কিতা সুশান্তের পছন্দের বিষয়ের বই সংগ্রহ করে আনতেন অঙ্কিতা। এমনকি সুশান্তের জন্য একসময় নিজের কেরিয়ার ছেড়ে দিতেও চেয়েছিলেন তিনি। সুশান্তের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও অঙ্কিতার সম্পর্ক যথেষ্ট ভালো ছিলো। সুশান্তের পটনার বাড়িতে বহুবার গিয়েছেন অঙ্কিতা। সুশান্ত-অঙ্কিতার বিয়েও ঠিক হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু সুশান্ত হঠাৎ এই সম্পর্ক ভেঙে দেন। একসময় সুশান্ত অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। কিন্তু সুশান্ত ক্রমশ নিজের ভুল বুঝতে পারছিলেন। কাউন্সেলিং-এর সময় সাইকিয়াট্রিস্ট-এর কাছে সুশান্ত অকপট স্বীকারোক্তি করে বলেছেন, অঙ্কিতা তাঁর জীবনের একমাত্র ভালোবাসা। অঙ্কিতার মতো করে কেউ তাঁকে ভালোবাসতে বা বুঝতে পারেননি। ততদিনে অবশ্য অঙ্কিতার সঙ্গে বাগদান হয়ে গেছে শিল্পপতি ভিকি জৈন-এর। কিন্তু এত কিছুর পরেও অঙ্কিতার সঙ্গে সুশান্তের দিদি-দের যোগাযোগ যথেষ্ট ভালো ছিল। এমনকি সুশান্তের বাবার সঙ্গেও ফোনে যোগাযোগ ছিল অঙ্কিতার। চলতি বছর হঠাৎ সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্যমৃত্যু ঘটে। এই খবর অঙ্কিতাকে জানানো হলে তিনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। সুশান্তের ফ্ল‍্যাটে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন অঙ্কিতা। সম্প্রতি সুশান্তের স্মৃতির উদ্দেশ্যে অঙ্কিতা ও সুশান্তের দিদি এক হাজার বৃক্ষরোপণ করেছেন। এমনকি সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তে সাহায্য করছেন অঙ্কিতা। ভিকি জৈন তাঁর জীবনে এলেও আজও অঙ্কিতার ঘরের দেওয়াল জুড়ে ফ্রেমবন্দী রয়েছে সুশান্তের প্রাণবন্ত মুহূর্ত। অঙ্কিতার ফ্ল্যাটের নেমপ্লেটে এখনও লেখা রয়েছে সুশান্ত-অঙ্কিতা।

Tags

Related Articles

Back to top button