×
নিউজপলিটিক্সরাজ্য

সত্যাগ্রহে অধীর , একের পর তোপ ছুঁড়লেন জোড়াফুল ও গেরুয়া শিবিরের দিকে

Advertisement

একদিকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহের জঙ্গলমহল সফর, অন্যদিকে পালটা ময়দানে কংগ্রেস নেতা। দলিত উৎপীড়ন ইস্যুতে আজ বিধানভবনের সামনে সামিল হন কংগ্রেস নেতৃত্ব। ওই দিন সত্যাগ্রহ মঞ্চে জোড়াফুল শিবিরের উদ্দেশ্যে একের পর এক তোপ ছুঁড়লেন কংগ্রেস নেতা অধির চৌধুরী। এর সাথেই তাকে বোমা ছুড়তে দেখা গেল গেরুয়া শিবিরের দিকে।

Advertisement

 

ওইদিন সত্যাগ্রহ মঞ্চ থেকে অধীর চৌধুরী বলেন,”বাংলার মানুষ জানেন যে দিদির ডাল ও যোগীর ডাল এক। দলিতদের ফুসলাতে এসেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এখন তো ভোট চলে এসেছে। আর এই সময় সবাই আসেন বড়ো বড়ো কথা বলতে। তারপর আর তাদের দেখা পাওয়া যায়না”। ওইদিন মুখ্যমন্ত্রীর দিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন রাজ্যের কংগ্রেস সভাপতি। ময়দানে তিনি বলেন,”সাহস থাকলে আমাদের কথার জবাব দিন মুখ্যমন্ত্রী। বাংলায় কতগুলি শুন্যপদ আছে তফসিলি জাতি-উপজাতিদের জন্য?”

Advertisement

 

কটাক্ষ করে অধীর বলেন,”বিজেপি আর তৃণমূল যে লড়াই লড়ছে তা কেবল কে কার থেকে বড়ো তার লড়াই। এছাড়া এই লড়াই হিন্দুত্বের। এর বাইরে আমি কিছু দেখতে পাইনা এই লড়াইয়ে। একদিকে পাহাড়ে চলছে কামড়াকামড়ি। আর অন্যদিকে বিজেপি আর তৃণমূলের ঝগড়া। বিজেপির মুখ তো ওই রাজ্যপালের মুখ টাই। উনি তো কেবল বিজেপির বিজ্ঞাপনই দিয়ে বেড়ান”।

 

ওইদিন তিনি আরও বলেন,”মদ বেঁচে জুয়া খেলে টাকা উঠছে। মদ বিক্রি হচ্ছে সস্তায়। একদিকে ২০ টাকায় মদ আর অন্যদিকে ৬০ টাকায় সবজি! দিদির রাজ্যে মানুষ খাবেন কি? এই রাজ্যে মানুষের এই দুর্দশা, দুর্গতির ছবি এতেই স্পষ্ট হয়ে যায়। এটা থেকে আরও স্পষ্ট যে কেমন আছি আমরা। এইবার মসনদ ছাড়তে হবে বাঙলার মুখ্যমন্ত্রীকে। আরও মজবুত হবে বাম-কংগ্রেস জোট। কারণ আমরা মানুষের জন্য রাজনীতি করি আর তাদেরই কথা বলি”।

Related Articles

Back to top button