টলিউডবাংলা সিরিয়ালবিনোদন

Shruti Das: ঘর ঝাড়তে গিয়ে ছোটবেলার একটুকরো স্মৃতি খুঁজে পেলেন ‘দেশের মাটি’ খ্যাত নোয়া

বাংলা টেলিভিশনের অতি জনপ্রিয় নাম এখন শ্রুতি দাস। ধারাবাহিকের সংখ্যা ২। ত্রিনয়নী থেকে দেশের মাটি- দুই ধারাবাহিকে নিজের অভিনয় দিয়ে টেলি মহলে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। ত্রিনয়নীর নয়ন হোক দেশের মাটির নোয়া দুই চরিত্রে সাবলীল অভিনয় দিয়ে বাঙালি দর্শকের খুব প্রিয় পাত্রী হয়ে উঠেছেন শ্রুতি। তবে অভিনেত্রীর আরো একটি গুনের জন্য তিনি বেশ খ্যাত। স্পষ্টবক্তা শ্রুতি। কোনো কথা রাখ ঢাক করে বলেন। স্পষ্ট কথায় কোনো কষ্ট নেই।

দুই ধারাবাহিকে অভিনয় করে সকলের প্রিয় পাত্রী হয়ে উঠেছেন অভিনেত্রী। শ্রুতি অভিনয়ের পাশাপাশি নিজের প্রেমের জন্য বেশ চর্চায় থাকেন।শ্রুতি দাস এবং স্বর্ণেন্দু সমাদ্দার। এই অভিনেত্রী এবং পরিচালকের প্রেমের খবর ইন্ডাস্ট্রির প্রায় সকলেই জানেন। অনেকে এদের সম্পর্ক নিয়ে ট্রোল করলেও সেই সব ট্রোলারদের যোগ্য জবাব ও দিয়েছেন। তবে কবে বিয়ে করছেন, সে সম্পর্কে এখনও কোনও ইঙ্গিত দেননি এই জুটি। আপাতত দুজনের কাজে ফোকাস করেছেন।

অভিনয়ের জন্য কলকাতায় থাকলেও শ্রুতি বড় হয়েছেন বর্ধমানের কাটোয়াতে। সদ্য শেষ হয়েছে দেশের মাটি ধারাবাহিক। তাই এখন কিছুদিনের ছুটি। তাই এইফাঁকে কাটোয়ার বাড়িতে ফিরে গেলেন। আর সেখানে গিয়ে কিছুটা নস্টালজিক হয়ে পড়লেন অভিনেত্রী। আলমারি থেকে খুঁজে পেলেন ছোটবেলার কিছু স্মৃতি আর তাই ভাগ করে নিলেন নিজের ইন্সটাগ্রামের সকল অনুগামীদের সাথে।

কি পেলেন অভিনেত্রী? পেলেন ছোটবেলার জামাকাপড় । তার মধ্যে রয়েছে লাল ফ্রক, হনুমান টুপি থেকে সোয়েটার। আর মেয়ের সব জিনিস যত্ন করে রেখে দিয়েছিলেন অভিনেত্রীর মা। আর সেই সব ছবির কোলাজ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে তিনি লিখেছেন ” আজ ঘর ঝাড়তে গিয়ে মায়ের সযত্নে ছাব্বিশ বছর ধরে আগলে রাখা আমার ছোট্টছোট্ট জামাকাপড় শোয়েটার হনুমান টুপি দেখে চোখ টা ভিজে উঠল। সব আছে,ছবি জামা সব। শুধু ফেলে আসা মেয়েবেলায় আর ফেরা হবেনা।” সত্যিই অভিনেত্রীর মেয়েবেলাতে ফেরা না হলেও এই স্মৃতি দিয়ে অভিনেত্রীর নিজের মেয়েবেলাতে ফিরলেন। অনেকে অভিনেত্রীকে ভালোবাসা জানিয়েছেন। নিমেষে ভাইরাল হয় এই পোস্ট।

Related Articles

Back to top button