নিউজরাজ্য

আলিপুর সেন্টাল জেলে তৃণমূল নেতারা একসাথে জেলের ভাত খাবে, কটাক্ষ দিলীপের

Advertisement

আবারো বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ তৃণমূল নেতাদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে কটাক্ষ করলেন। তিনি আজ সকালে চিংড়িঘাটায় একটি চায়ে পে চর্চা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। সেখানেই তিনি রাজ্যে চলা অরাজকতা ও শাসক দলের নেতাদের বিরুদ্ধে সরব হন। তিনি সরাসরি তৃণমূল নেতাদের আক্রমণ করে বলেছেন যে আগামী বছর বিজেপি বাংলায় ক্ষমতায় আসলেই তৃণমূল নেতাদের বাড়িতে ইডিকে পাঠাবেন। তাদের অবৈধ সম্পত্তির খোঁজ করে তাদের সবাইকে জেলে পাঠাবে ইডি।

সকাল সকাল চায়ে পে চর্চা অনুষ্ঠানে যোগদান করে বিস্ফোরক মন্তব্য করতে শোনা গেছে দিলীপ ঘোষকে। তিনি বলেছেন কলকাতার নিউটাউনে সব তৃণমূল নেতাদের ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার স্কোয়ার ফিটের ফ্ল্যাট রয়েছে। কিন্তু সেই সম্পত্তির কোন হিসাব নেই। বিজেপি একবার শাসনে এলেই সেই সমস্ত তথ্য তুলে দেয়া হবে ইডিকে। তারপর তৃণমূল নেতাদের স্থান হবে আলিপুর সেন্ট্রাল জেলে। সবাই একসাথে বসে জেলের ভাত খাবে বলে কটাক্ষ করেছেন তিনি।

কিছুদিন আগে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের বেকার যুবক যুবতীদের জন্য কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্ক থেকে সহজ শর্তে বাইক কেনার জন্য ঋণের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেছিল। সেই বাইকে বক্স লাগিয়ে কেউ ঘুরে ঘুরে শাড়ি বিক্রি করে বা ফল বিক্রি করে তাদের কর্ম সংস্থান করতে পারবেন বলে আশা তার। এই বাইক কেনার জন্য ঋণ তিনি রাজ্যের ২ লাখ ছেলেমেয়েদের দেবেন বলে জানিয়েছিল। এই সিদ্ধান্তের তীব্র কটাক্ষ করেছে দিলীপ ঘোষ। তিনি মমতাকে বিদ্রূপ করে বলেছেন, বাইকের তেলের খরচ যোগাবে কে? এছাড়াও তিনি অভিযোগ জানিয়েছেন যে রাজ্য সরকার কর্মসংস্থানের উপর জোর না দিয়ে মানুষকে বোকা বানানোর প্রকল্পে মনোনিবেশ করছে।

এছাড়াও এদিন তাকে বাম কংগ্রেসের জোটের সম্বন্ধে কথা বলতে শোনা গিয়েছে। তিনি বলেছেন এর কোনো সম্ভাবনা নেই। আর ভবিষ্যতে বাম ও কংগ্রেস কেউই থাকবেনা এই রাজ্যে। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ এখন বিজেপিকে চাইছে। এছাড়াও আগামী বিধানসভা নির্বাচনে সুষ্ঠভাবে ভোটদানের জন্য কেন্দ্রীয় বাহিনী আনা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এমনকি রাজ্য পুলিশকে ভোটকেন্দ্রে ধারে কাছে ঘেষতে দেবেন না বলে হুংকার দিয়েছেন তিনি।

Tags

Related Articles

Back to top button