Today Trending Newsনিউজপলিটিক্সরাজ্য

এবার ‘খেলা হবে’ দিবস পালন হবে বাংলায়, খুব শীঘ্রই তারিখ ঘোষণা করবে মমতা

এবারের বিধানসভা নির্বাচনে অত্যন্ত জনপ্রিয় স্লোগান খেলা হবে ব্যবহার করে দিবস পালন করতে চলেছে রাজ্য সরকার

Advertisement
×

এবারে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে দেবাংশু ভট্টাচার্য রচিত গান খেলা হবে অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়েছিল। এমনকি খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে শোনা গিয়েছিল এই খেলা হবে স্লোগান। সোশ্যাল মিডিয়াতে এই খেলা হবে স্লোগান নিয়ে তৈরি হয়েছিল নানান মিম এবং নানা ধরনের ভিডিও। আর এবারে সেই খেলা হবে স্লোগান একটি নতুন মাত্রা পেতে চলেছে। সূত্রের খবর রাজ্য সরকার এবারে পালন করতে শুরু করবে খেলা হবে দিবস। এই দিবসের দিনক্ষণ এবং কিভাবে এই দিবস পালিত হবে সবকিছু খুব শীঘ্রই জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস।

Advertisement
Advertisement

তবে এই দিবস কিভাবে পালিত হবে সেই নিয়ে অনেকে অনেক রকম অনুমান শুরু করে দিয়েছেন। এবারের বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই খেলা হবে স্লোগান টি জনমানুষের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়েছিল। এই কারণে এবারে এই খেলা হবে স্লোগান তুলে জনগণকে আরো একবার উদ্বুদ্ধ করতে চাইছে তৃণমূল কংগ্রেস। কেউ কেউ বলছেন সেদিন নাকি দিদি একাদশ বনাম দাদা একাদশ খেলা হবে। যদিও, তৃণমূল কংগ্রেসের তরফ থেকে এখনো পর্যন্ত এই বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

Advertisement

ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে, ইতিমধ্যেই এই খেলা হবে স্লোগান সকলের শিরায় শিরায় পৌঁছে গিয়েছে। এবছর বিধানসভা নির্বাচনে একেবারে কোচবিহার থেকে কাকদ্বীপ পর্যন্ত এই স্লোগান বাজানো হয়েছিল। প্রত্যেক তৃণমূল কর্মী রীতিমতো ডিজে বাজিয়ে এই গানের সাথে নাচ করেছিলেন, এবং এই গানের সঙ্গে গলা মিলিয়ে ছিলেন। তৃণমূল মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য যেখানেই যেতেন সেখানেই তার গলায় খেলা হবে গান শোনার জন্য সকলে অপেক্ষা করতেন। শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গে না, ভিন রাজ্যেও ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে এই খেলা হবে স্লোগান।

Advertisement
Advertisement

যেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ভাঙ্গা পায়ে খেলা হবে, সেখানেই আমরা অনুব্রত মণ্ডলের গলায় শুনেছিলাম ভয়ঙ্কর খেলা হবে। আবার দেবাংশু ভট্টাচার্য বলেছিলেন, বন্ধু এবার খেলা হবে। অর্থাৎ এই খেলা হবে স্লোগানের নানান প্রকার। কিন্তু সকলেই, এই খেলা হবে স্লোগান নিয়ে ভোটের ময়দানে গলা ফাটিয়ে ছিলেন। তবে সরকারি স্তরে এবারে এই খেলা হবে স্লোগানকে কেন্দ্র করে দিবস পালন কতটা যুক্তিযুক্ত, সেই প্রশ্নটা কিন্তু থাকছে। কিন্তু, শাসকদলের তরফ থেকে বলা হচ্ছে, এই খেলা হবে স্লোগান কোনো বিদ্বেশকারী স্লোগান নয়। বরং বিরোধীদের নানা কুৎসার যোগ্য জবাব দেবার জন্য এই খেলা হবে দিবস পালিত হতে চলেছে।

Advertisement

Related Articles

Back to top button