নিউজপলিটিক্সরাজ্য

শুভেন্দু অধিকারীর মত সুনীল মণ্ডলও পাবেন কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা, জানালেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়

Advertisement

একুশে নির্বাচনের আগে বঙ্গ রাজনীতিতে দলবদলের খেলা বেশ জমে উঠেছে। আর এরকম পরিস্থিতিতে গতকাল তৃণমূল ত্যাগী সাংসদ সুনীল মন্ডল বিজেপির কলকাতা হেস্টিংস কার্যালয়ে ঢোকার সময় বিক্ষোভের সম্মুখীন হলেন। গতকাল বিজেপিতে নতুন আসা তৃণমূল ত্যাগী নেতাদের নিয়ে বিজেপির হেস্টিংস কার্যালয়ে একটি সভা ছিল। আর সেই সভাতে আসতে গিয়ে হেস্টিংস কার্যালয় প্রবেশদ্বারে বিক্ষোভের সম্মুখীন হতে হয় সুনীল মণ্ডলকে। আর তা নিয়ে বেশ চিন্তিত গেরুয়া শীর্ষ নেতারা।

গতকালই সুনীল মন্ডলের বিক্ষোভ মাঝে পড়ার ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ কৈলাস বিজয়বর্গীয় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে দিয়েছিলেন। সেই সাথে তিনি সুনীল মণ্ডলকে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য অনুরোধ করে চিঠি লিখেছিলেন। এবার শুভেন্দু অধিকারীর পর তৃণমূল ত্যাগী সুনীল মণ্ডল হয়তো কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা পেতে চলেছে।

গত ১৯ ডিসেম্বর পূর্ব মেদিনীপুরের সভা থেকে অমিত শাহের হাত ধরে বিজেপিতে আসেন শুভেন্দু অধিকারী। আর তার সাথে তৃণমূল ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগদান করে সুনীল মণ্ডলও। তৃণমূল ছেড়ে দেওয়ায় রাজ্য সরকারের পাইলটসহ সমস্ত নিরাপত্তা ছেড়ে দিয়েছিলেন তারা। তারপর শুভেন্দু অধিকারীকে কেন্দ্র থেকে বুলেটপ্রুফ গাড়ি সহ জেড ক্যাটাগরি কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছিল। এবার সুনীল মণ্ডল এর জন্য কেন্দ্রীয় নিরাপত্তার আর্জি জানানো হয়েছে।তবে তাকে জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দেয়া হয় নাকি, সেটা এখন দেখার।

প্রসঙ্গত গতকাল বিজেপির হেস্টিংস কার্যালয় তৃণমূল ত্যাগী নেতাদের নিয়ে শীর্ষ নেতৃত্ব একটি বৈঠক আয়োজন করেছিলেন। তাতেই যোগদান করতে আসছিলেন প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ সুনীল মণ্ডল। কার্যালয়ে ঢোকার সময় তার গাড়িকে বাধা দেয়া হয় ও বিক্ষোভ শুরু হয়। দফায় দফায় বিক্ষোভ চলতে থাকায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে বিজেপি ও তৃণমূল সমর্থকরা। দুই পক্ষের বচসায় পরিস্থিতি ক্রমশ বেহাল হয়ে ওঠে। পরে পুলিশ বাহিনী নেমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

Tags

Related Articles

Back to top button