টলিউডবিনোদন

ছোট্ট আদিদেবের প্রিয় বন্ধু কে? দেখুন এই ভিডিও



বাংলার রান্নাঘরের রাণী বলতে একজনের কথা আগে মাথায় আসবে। হ্যাঁ ইনি হলেন জি বাংলার কুকারি শোয়ের সঞ্চালিকা সুদীপা চ্যাটার্জি। কথায় আছে যে রাঁধে সে আবার চুল ও বাঁধে। এই কথার যথার্থ উদাহরণ হল সুদীপা। একদিকে প্রত্যেকদিন হাতা খুন্তি নিয়ে বিকেলে প্রিয় দর্শকদের সামনে হাজির হন, পাশাপাশি চিত্র‍্যনাট্যকার, পরিচালক হিসেবে কাজ করেন। অন্যদিকে স্বামী আর দুই ছেলেকে নিয়ে পুরো সংসারের দায়িত্ব একাহাতে সামলানো। কাজের পাশাপাশি নিজের সংসার হল সুদীপার ধ্যান-জ্ঞান।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sudipa Chatterjee (@sudiparrannaghor)

সুদীপার ছোট ছেলে আদিদেব। মাত্র আড়াই বছর বয়স। তাই ছোট ছেলের দিকে বেশি যত্ন রাখতে হয় সঞ্চালিকাকে। পাশাপাশি আছে বাড়িতে আরো দুই পোষ্য। পোষ্য যে সুদীপার প্রিয় তা সকলের জানা। সুদীপা আর অগ্নিদেবের প্রথম ভালোলাগার কারণ ছিল এই পোষ্যরা। অগ্নিদেব চট্টোপাধ্যায় পরিচালিত ‘কোন সে আলোর স্বপ্ন নিয়ে’তে কাজ করার সময় অগ্নিদেব ও সুদীপার প্রথম আলাপ। সুদীপা জানান, অগ্নিদেব-এর বাড়ির পোষ্যরা ছিল সুদীপার খুব প্রিয়। অগ্নিদেবের প্রিয় পোষ্যদের নিজের মতো করে ভালোবাসতেন। এরপর এরা নিজেরাই প্রেমে পড়েন।

বাবা মায়ের মতো ছেলের ও প্রিয় হল এই পোষ্য। আর ছেলের বেস্ট ফ্রেন্ডের সাথে পরিচয় করালেন সুদীপা নিজে। সম্প্রতি সুদীপা নিজের ইন্সটাগ্রাম হ্যান্ডেলে একটি ছোট রিল ভিডিও শেয়ার করেছেন। সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, ছোট্ট আদিদেব আর সঞ্চালিকার প্রিয় পোষ্য দুজনে আনন্দের সাথে খেলছে। কখনো কুকুরটির ওপর উঠে পড়ছে কখনো তার ঘাড়ে ম্যাসেজ করে দিচ্ছে। দুজন দুজনের মতো করে সময় কাটাচ্ছে। অন্যদিকে ব্যকগ্রাউন্ডে বাজছে ‘লাকরি কি কাঠি’ গানটি। ক্যপাশানে লিখেছেন, “এমন বন্ধু আর কে আছে”। সত্যি এমন বন্ধু কেই বা আছে। সুদীপার এই ভিডিও শেয়ার হতেই অনুরাগীরা ছোট্ট আদি আর এই পোষ্যকে ভালোবাসা জানিয়েছেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sudipa Chatterjee (@sudiparrannaghor)

উল্লেখ্য,দুদিন আগেই ছিল সুদীপা আর অগ্নিদেবের ১২ তম বিবাহবার্ষিকী। দুদিন আগেই স্বামী তথা প্রযোজক-পরিচালক অগ্নিদেব চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে এক যুগ ধরে সংসার করার অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছিলেন। পাশাপাশি ১২ বছরের বিবাহবার্ষিকী উদযাপন করলেন সুদীপা। ৯ই জুলাই নিজেদের বিবাহবার্ষিকী উদযানের একাধিক ছবি সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করেন তিনি। ২০১০ এর ৯ জুলাই আইনি বিয়ে হয় দম্পতির। এরপর সাত বছর রেজিস্ট্রি ম্যারেজ করেছিলেন। করোনাকালে কোনো জাঁকজমক নয় বরং বাড়িতেই ঘরোয়া উদযাপন করতে দেখা যায় দম্পতিকে। এই দিন সুদীপা নিজের হাতে সকলকে কাবাব রান্না করে নিজের হাতে পরিবেশন করেছেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sudipa Chatterjee (@sudiparrannaghor)

Related Articles

Back to top button