ভাইরাল & ভিডিও

‘বন্ধু কালাচাঁদ’ স্কুলের বেঞ্চে উঠে সাত ছাত্রীর উদ্দাম নাচ, ভাইরাল ভিডিও দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে নেটিজেনদের

Advertisement

নেটদুনিয়ায় কোন কিছুই ভাইরাল হতে বিশেষ সময় লাগে না। কনটেন্ট ভালো হোক কিংবা খারাপ তা যদি নেটিজেনদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারে তাহলে তা ভাইরাল হবেই। প্রতিদিন প্রতিমুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় হাজার হাজার ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে। তবে তার মধ্যে সব ভিডিও যে মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয় তাও নয়। তবে যে সমস্ত ভিডিও ভাইরাল হয় তার মধ্যে বেশিরভাগটাই নেটিজেনদের বিনোদনের উপর নির্ভরশীল।

Advertisement

বর্তমান যুগে রিল ভিডিও বানানোটা একটা ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে। আট থেকে আশি প্রায় সকলেই নিজেদের অবসরে ব্যস্ত থাকেন রিল ভিডিও বানাতে। অবশ্য ইনস্টাগ্রাম আজকের দিনে দাঁড়িয়ে আমজনতা হোক কিংবা তারকা সকলের কাছেই একটি জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম। সকলেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পরিচিত হতে চান মানুষের মধ্যে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘ লকডাউনে থাকার পর মোবাইল ফোনে আসক্ত হয়ে পড়েছেন সকলেই। বাদ নেই স্কুল পড়ুয়ারাও। কারণ এতদিন ধরে পড়াশোনা চলেছে মোবাইল ফোনেই। সেকারণে সকলের হাতেই এসে গিয়েছে স্মার্টফোন। এক্ষেত্রে তারা সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি ঝুঁকে পড়েছে ভীষণভাবে। দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার পর সম্প্রতি স্কুল যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা। স্বাভাবিকভাবে তারা বন্ধুদের কাছে পেয়ে খুশি। তবে তুফানগঞ্জের নৃপেন্দ্র নারায়ন মেমোরিয়াল স্কুলের ৭ পড়ুয়ার খুশির উচ্ছ্বাস দেখে অবাক হয়েছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ।

Advertisement

সম্প্রতি তুফানগঞ্জের নৃপেন্দ্র নারায়ন মেমোরিয়াল স্কুলের ৭ পড়ুয়া স্কুল ড্রেসেই ক্লাস রুমের মধ্যে ‘বন্ধু কালাচাঁদ’ গানে তুমুল নেচে রিল ভিডিও বানিয়ে তা শেয়ার করে ভাইরাল হয়েছে। আর সেই ভিডিও ভাইরাল হতেই ঘটে বিপত্তি। ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া বদলে এইসব পড়ুয়ার কপালে জুটেছে সমস্ত নেতিবাচক মন্তব্য। ইতিমধ্যেই এই ভিডিও গিয়ে পৌঁছেছে প্রধান শিক্ষকের হাতে। জানা গেছে, স্কুল বাউন্ডারির মধ্যেই এমন কান্ড ঘটানোর জন্য তাদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির বন্দোবস্ত করতে পারে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

সম্প্রতি এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই এই ভিডিও দেখে বেজায় চটেছেন নেটনাগরিকদের একাংশ। এমনকি তাদের কোভিড বিধি মানতেও দেখা যায়নি। স্কুল খোলার পর পড়ুয়াদের সতর্ক করার দায়িত্ব স্কুলকে দিয়েছে রাজ্য। এক্ষেত্রে স্কুল কর্তৃপক্ষকে পড়ুয়াদের কড়া হাতে সতর্ক করতে হবে যাতে ভবিষ্যতে এমন ঘটনা আর না ঘটে। কারণ এখন প্রায়ই এমন ঘটনা বারবার ঘটতে দেখা যাচ্ছে।

Advertisement

Related Articles

Back to top button