দেশনিউজ

ড্রাগ ব্যবহারের পিছনে রয়েছে পাকিস্তান এবং চিনের হাত, এমনই দাবি অভিনেতা সাংসদ রবি কিষণের

মুম্বাইঃ সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্য সমাধানের গল্পটা অনেকটা কেঁচো খুঁড়তে কেউটের মতন। সুশান্তের মৃত্যুর পরই একে একে সামনে এসেছে চকচকে বলিউডের নানা কালো অধ্যায়। যাখানে আছে বলিউডে নেপোটিজম, স্টার কিডদের সুবিধা পাওয়া এবং অন্যদিকে ড্রাগস ব্যবহার। যা ইতিমধ্যেই ভারতের রাজনীতিকেও নাড়িয়ে দিয়েছে। এই ঘটনায় জড়িয়েছে একাধিক বলি সেলেবদের নাম। কিন্তু এসবের মাঝেই অন্য এক আশঙ্কা করেছেন অভিনেতা রবি কিষণ। এসবের পিছনে প্রতিবেশী রাষ্ট্র পাকিস্তান ও চিনের চক্রান্ত আছে বলে মত অভিনেতা সাংসদ রবি কিষণের৷

দেশের যুবকদের ভবিষ্যৎ শেষ করতে ড্রাগের নেশায় ডুবিয়ে দিয়ে ভয়ঙ্কর চক্রান্ত করছে পাকিস্তান ও চিন৷ পাশাপাশি তিনি এও জানিয়েছেন চিন ও পাকিস্তান থেকে প্রতি বছর বিপুল পরিমাণে ড্রাগ স্মাগলিংও করা হয়। এমনকি সংসদে দাঁড়িয়ে তিনি নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর কাজের প্রশংসাও করেন এবং বলেন ড্রাগসের বিরুদ্ধে কেন্দ্র যেন কড়া পদক্ষেপ নেয় এনসিবি৷

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যু তদন্ত এতোটাই জটিল হয় যে তা মুম্বই পুলিশ, বিহার পুলিশ, পেড়িয়ে চলে যায় সিবিআইয়ের হাতে। সুশান্ত সিংহর হত্যা মামলায় জড়িত মূল অভিযুক্ত রেহা চক্রবর্তীকেও এর মধ্যে গ্রেফতার করেছে এনসিবি, পাশাপাশি গ্রেফতার হয়েছে রিয়ার ভাইও।

এমনকি সিবিআইয়ের পাশাপাশি সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত করছে ইডি ও নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। এর পাশাপাশি ২৫ জন সেলিব্রিটিরও নাম প্রকাশ করেছেন মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী। ওই ২৫ জনের মধ্যে থেকে ৫ জনের নাম প্রকাশ্যে এসেছে, যাদের মধ্যে অন্যতম এক জন হলেন সারা আলি খান। এছাড়াও আজ এনসিবি আটক করেছে সৌভিকের ছেলে বেলার বন্ধু করমজিৎকে। সব মিলিয়ে যত দিন যাচ্ছে পরিস্থিতি ততোই জটিল হচ্ছে।

 

Tags

Related Articles

Back to top button