নিউজরাজ্য

প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ করে মামলা হাইকোর্টে, চাপে পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ

Advertisement

বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর পর এবারে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে হাইকোর্টে দায়ের হলে একটি নতুন মামলা। বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়ার ঠিক পরেই কলকাতা হাইকোর্টে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং সেই নিয়ে পুনরায় নতুন করে চাপে পড়েছে রাজ্য। এই নতুন মামলার শুনানি হবে আগামী ৪ জানুয়ারি। হাইকোর্টের বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের বেঞ্চে এ শুনানি হতে চলেছে।

মামলাকারী দাবি করেছে, প্রাথমিক টেটে ভুল প্রশ্ন থাকার কারণে ১৩০ জন পরীক্ষার্থী হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন। সেই মামলা ভিত্তিতে ২০১৮ সালে তাদের পুনর্মূল্যায়নের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়। নির্দেশ ছিল সেই পুনর্মূল্যায়নের পরে যারা যারা যোগ্য হিসেবে বিবেচিত হবেন তাদের হাতে নিয়োগপত্র দেওয়া হবে। এই মামলার রায়ের পরে অনেকে আবার উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়নের দাবি জানিয়েছিলেন। সেই মামলার এখনো পর্যন্ত নিষ্পত্তি হয়নি।

সেই মামলার এখনো বন্ধু নিষ্পত্তি না হওয়ার মধ্যে রাজ্য সরকার গত ২৩ নভেম্বর তারিখে নতুন করে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করে। নির্দেশ দেওয়া হয়, ২০১৪ সালে যারা টেটে উত্তীর্ণ হয়েছিলেন তারা আবেদন করতে পারবেন। সেই বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন বেশ কয়েক জন পরীক্ষার্থী। তার পরিপ্রেক্ষিতেই পরবর্তীতে পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা পর্ষদের থেকে জবাব তলব করেছিলেন বিচারপতি। সেই সময় পর্ষদ এর তরফ থেকে জানানো হয়েছিল, এখনই কিন্তু চূড়ান্ত নিয়োগ হচ্ছে না।

কিন্তু গত বুধবার শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি আসার পরে, বেশ কয়েকজন মামলাকারী দাবি করেছেন, তাদের উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়নের নির্দেশ হাইকোর্টের তরফ থেকে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তা না করে এখনই কিভাবে শিক্ষক নিয়োগ করা সম্ভব। আবেদনকারীদের দাবি, যোগ্য প্রার্থীদের বঞ্চিত করার চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার। এই কারণে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের সরাসরি মামলা দায়ের করেছেন পরীক্ষার্থীরা। ইতিমধ্যেই এই মামলার শুনানির তারিখ ঠিক হয়ে গিয়েছে। আগামী বছর ৪ জানুয়ারি তারিখে শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

Tags

Related Articles

Back to top button