Today Trending Newsনিউজপলিটিক্সরাজ্য

পিছল নন্দীগ্রামের পুনর্গণনার মামলার শুনানি, আগামী শুনানি বৃহস্পতিবার

আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত ছিলেন না বলে নন্দীগ্রাম মামলার শুনানি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত স্থগিত করে দেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ



কলকাতা হাইকোর্টে পিছিয়ে গেল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বনাম শুভেন্দু অধিকারী মামলার শুনানির তারিখ। আজকে বিচারপতি কৌশিক চন্দের এজলাসে এই মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আজ বিচারপতি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শুনানি পিছিয়ে দেওয়ার ঘোষণা করলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবিদের উদ্দেশ্যে বিচারপতি প্রশ্ন রাখেন, নির্বাচনী মামলায় সাধারণত মামলাকারীকে থাকতে হয়, এক্ষেত্রে মামলাকারী কি থাকতে পারবেন?

এই প্রশ্নের উত্তরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবীরা উত্তর দেন, ” যা নিয়ম আছে তাই হবে।” এর পরেই বৃহস্পতিবার মামলার শুনানি পিছিয়ে দেওয়ার ঘোষণা করেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ। নন্দীগ্রাম আসনের ভোট গণনার ফলাফল নিয়ে প্রথম থেকেই চলছিলো একটা সমস্যা। প্রথমে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে জয়ী ঘোষণা করা হলেও পরবর্তীকালে জানানো হয় শুভেন্দু অধিকারী জয়লাভ করেছেন। তারপরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তৃণমূল নেতৃত্ব এই মামলা করার হুঁশিয়ারি দিয়েছিল।

বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম ছিল সবথেকে হাইপ্রোফাইল কেন্দ্র। একদিকে যেমন শুভেন্দু অধিকারী অন্যদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই হাইপ্রোফাইল কেন্দ্রের ভোট গণনায় বেশ কিছু অসংগতি চোখে পড়েছিল প্রথম থেকেই। আগে বেশ কিছুক্ষণ সিগন্যাল চলে গিয়েছিল, পরে আবার সিগনাল ফিরে আসলে চলে গেছিল বিদ্যুৎ সংযোগ। একবার প্রথমে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে জয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। পরমুহূর্তেই আবার কথা পাল্টে শুভেন্দু অধিকারী কে জয়ী ঘোষণা করা হয়। ফলে নন্দীগ্রাম আসনের ফলাফল নিয়ে প্রথম থেকেই জল্পনা চলছিল। পরাজয়ের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই আসনের পুনর্গণনার দাবি নিয়ে হাইকোর্টে মামলা করার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন।

সেইমতো ফল প্রকাশের দেড় মাসের মধ্যেই হাইকোর্টে মামলা দায়ের করা হয়। আজকেই এই মামলার প্রথম শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আজকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হাইকোর্টে উপস্থিত না থাকার কারণে এই মামলার শুনানি পিছিয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত করে দেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ। আগামী বৃহস্পতিবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে হাইকোর্টে এই হাইপ্রোফাইল মামলার শুনানি শুরু হবে। অন্যদিকে এই মামলা দায়ের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কটাক্ষের সুর তুলেছেন বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য থেকে শুরু করে বিজেপির আইটি সেল এর প্রধান অমিত মালব্য টুইট করে মমতার বিরুদ্ধে কটাক্ষ করেছেন। একদিকে যেমন মালব্য বলেছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হেরে গিয়েও জনতার রায় কে মানতে পারছেন না, তেমনি আবার অপর পক্ষে শমীক ভট্টাচার্য বলেছেন, “আইন অনুযায়ী নন্দীগ্রামে হেরে গিয়েও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, আর জয়লাভ করেও বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।”

Related Articles

Back to top button