ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

৫০ টাকা দিয়েই পেয়ে যান ৩৫ লাখ টাকা, জেনে নিন পোস্ট অফিসের গ্রাম সুরক্ষা যোজনা সমন্ধে

গ্রামীণ জনসাধারণের জন্য ১৯৯৫ সালে পোস্ট অফিস এই স্কিম চালু করে

×
Advertisement

বর্তমান সময় যেমনভাবে মানুষ অর্থ উপার্জন করছেন, ঠিক তেমনভাবেই বিনিয়োগের দিকে খেয়াল রাখছেন। বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ধরনের বিনিয়োগের স্কিম রয়েছে এবং তার থেকে বেশ ভালো পরিমাণ টাকা ফেরতও পাওয়া যায়। তবে বিনিয়োগের কথা উঠলেই প্রথমেই জেনে রাখা ভালো যে বিনিয়োগ মাত্রই ঝুঁকি আছে। যেই সমস্ত স্কিমে বেশি রিটার্ন থাকে সেখানে ঝুঁকির পরিমাণ বেশি। তাই ঝুঁকির ভয়ে অনেকেই পিছিয়ে পড়ে বিনিয়োগ করতে চান না। তবে এবার তাদের জন্য এক অনন্য স্কিম আনলো পোস্ট অফিস। এই ইন্ডিয়া পোস্ট সাধারণ মানুষের জন্য আজকাল একের পর এক আকর্ষণীয় স্কিম আনছে। এই সময় কোটি কোটি মানুষ পোস্ট অফিসের স্কিমগুলিতে বিনিয়োগ করে ভাল আয়ের সুবিধা পাচ্ছেন।

Advertisement

বিনিয়োগ করা মানেই আজকালকার দিনেই ঝুঁকি থেকে যায় আর্থিক দুর্নীতি হওয়ার। লোকেরা সবসময় ভাল রিটার্নের স্কিম বেছে নিতে পছন্দ করেন। কিন্তু এবার ভাল রিটার্নের সুবিধা দেবে পোস্ট অফিসই। পোস্ট অফিসের নতুন স্কিমের নাম গ্রাম সুরক্ষা যোজনা। এই স্কিমের লাভের অঙ্ক শুনলে আপনিও অবাক হয়ে যাবেন। এতে আপনি অল্প পরিমাণে বিনিয়োগ করে লাখ লাখ টাকা পেয়ে যেতে পারেন। আজকের এই প্রতিবেদনে গ্রাম সুরক্ষা যোজনা সমন্ধে সবিস্তারে জেনে নিন।

আজকালকার দিনে পোস্ট অফিসে বিনিয়োগ করা বেশ লাভজনক হয়ে উঠেছে। আপনি এই স্কিমে খুব কম টাকা দিয়ে বিনিয়োগ করা শুরু করতে পারেন। আপনি শুনলে অবাক হবেন যে আপনি পোস্ট অফিসের স্কিমে প্রতি মাসে ১৫০০ টাকা বিনিয়োগ করলে ৩৫ লাখ টাকা অব্দি পেতে পারেন। এই স্কিম গ্রামীণ জনসাধারণের জন্য ১৯৯৫ সালে শুরু হয়েছিল। স্কিমটি সমন্ধে আরও জেনে নিতে এই প্রতিবেদনের শেষ অংশটি পড়ুন।

Advertisement

গ্রাম সুরক্ষা যোজনায় আপনি প্রতিদিন ৫০ টাকা অর্থাৎ প্রতি মাসে ১৫০০ টাকা বিনিয়োগ করলে আপনি ৩৫ লাখ টাকা অব্দি পেতে পারেন। ৮০ বছর অতিক্রান্ত হলে আপনি এই টাকা পাবেন। তবে কোনো ব্যক্তি যদি ৮০ বছরের আগে মারা যান, তাহলে তার মনোনীত ব্যক্তি সেই টাকা পেয়ে যাবেন। এই যোজনায় ১৯ বছর থেকে ৫৫ বছরের ব্যক্তি বিনিয়োগ করতে পারবেন। এই গ্রাম সুরক্ষা যোজনায় আপনি প্রতি মাসে বা ৩ মাসে বা ৬ মাসে প্রিমিয়াম দিতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button