অফবিটভাইরাল & ভিডিও

কুকুরের পিঠে হিলিয়ামের বেলুন লাগিয়ে আকাশে ওড়ানোর চেষ্টা, পশু নির্যাতনে গ্রেফতার দিল্লির ইউটিউবার

Advertisement

দিল্লির একজন ইউটিউবারের বিরুদ্ধে উঠলো পশু নির্যাতনের অভিযোগ। দিন কয়েক আগে ওই ইউটিউবার তার পোষা কুকুরের পিঠে হিলিয়ামের বেলুন লাগিয়ে তাকে আকাশের দিকে উড়িয়ে দেন। গৌরব শর্মা নামের ওই ইউটিউবার এই ঘটনাটির একটি ভিডিওগ্রাফি করে তার ইউটিউব চ্যানেলে পোস্ট করেছিলেন। তারপরেই নেটদুনিয়ায় এই ভিডিও ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।

গৌরব তার ইউটিউব চ্যানেলে কনটেন্ট তৈরি করার জন্য পোষা কুকুরের পিঠে বেশকিছু হিলিয়ামের বেলুন লাগিয়ে তাকে ছেড়ে দেন। হিলিয়ামের বেলুন পিঠে আটকানো থাকার কারণে সারমেয়টির শরীর হাওয়ায় ভাসতে শুরু করে। তারপর গৌরব তার পোষা কুকুরটিকে হাতে তুলে আকাশের দিকে তুলে দিয়ে ছেড়ে দেন। কিছুক্ষণ পরেই কুকুরটি আকাশে ভাসতে আরম্ভ করে। এই ঘটনা দেখে গৌরব এবং তার মা আনন্দে হাততালি দিতে থাকেন। কিন্তু ঘটনাটির ভিডিও রেকর্ডিং সোশ্যাল ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটে বিপত্তি। গৌরব পশুপ্রেমী মানুষের রোষের সম্মুখীন হন। বিভিন্ন পশুপ্রেমী সংগঠনের তরফ থেকে গৌরব এর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠতে শুরু করে।

পিপল ফর অ্যানিমাল গৌরবের বিরুদ্ধে পশু নির্যাতনের অভিযোগ আনে। দিল্লির মালব্য নগর থানায় গৌরবের বিরুদ্ধে পশু নির্যাতন আইনের ধারা ১৮৮, ২৬৯, এবং ৩৪ অনুযায়ী মামলা দায়ের করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক বিতর্কের সম্মুখীন হওয়ার পরে গৌরব ওই বিতর্কিত ভিডিওটি ডিলিট করে দিতে বাধ্য হন। তারপর নিজে একটি ভিডিও পোস্ট করে তার এই কাজের জন্য সকলের কাছে ক্ষমা চান।

ভিডিও পোস্ট করে গৌরব সকল পশু প্রেমীদের কাছে করজোড়ে ক্ষমা চেয়ে বলেছেন, তিনি তার পোষা কুকুরটিকে তার নিজের শিশুর মতো ভালোবাসেন। এই ভিডিওতে তিনি জানিয়েছেন তার কুকুরের নাম হল ডলার। ভিডিওতে তিনি বক্তব্য রেখেছেন, “আমি আপনাদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী যদি ডলারের ওই ভিডিওটি দেখে আপনাদের খারাপ লাগে। আমি আর ভবিষ্যতে এরকম কিছু চেষ্টাও করবনা। যদি আপনারা এই ভিডিও দেখে ক্ষুব্ধ থাকেন, আমি অনুতপ্ত। যদি আপনার আবেগে কোনভাবে আঘাত করে থাকি এই ভিডিওটির মাধ্যমে, তাহলে আমি আপনার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। আমি ভিডিওটি তৈরি করার আগে সবরকম সুরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিলাম। তবে আমি ভিডিওটির এই পার্টটি আপলোড করিনি। সোশাল মিডিয়ায় এই ভিডিওটির একটি ভুল পার্ট আপলোড হয়ে গেছে, আর এটা কখনোই হওয়া উচিত ছিল না। আমি আর ভবিষ্যতে এরকম কিছুর চেষ্টা করবনা। আমি আপনাদের সকলের কাছে আরো একবার ক্ষমা চাইছি।”

Related Articles

Back to top button