বলিউডবিনোদন

জনপ্রিয় অভিনেতার মৃত্যুর পর ছেলের জন্ম, খুদেকে নিয়ে ছবি মায়ের, চোখে জল ভক্তদের

Chiranjeevi sarja junior

Advertisement
×

সম্প্রতি প্রকাশ্যে এলো প্রয়াত অভিনেতা চিরঞ্জীবি সারজা (chiranjeevi sarja) ও তাঁর স্ত্রী মেঘনা রাজের (Meghna Raj)একমাত্র পুত্রসন্তানের ছবি। তবে পারিবারিক রীতি অনুযায়ী নামকরণ অনুষ্ঠানের আগে সন্তানের মুখ প্রকাশ্যে আনার নিয়ম না থাকায় মেঘনা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ একটি ছবি শেয়ার করেছেন ইন্সটাগ্রামে। সেই ছবিতে দেখা যাচ্ছে ‘খুদে চিরঞ্জীবী’র ছোট্ট হাত ধরে রয়েছে তার মা মেঘনার আঙুল। ছবিটি দেখে মেঘনা ও তাঁর সন্তানকে ভালোবাসায় ভরিয়ে দিয়েছেন নেটিজেনরা। অনেকেই ইমোশনাল হয়ে পড়েছেন ছবিটি দেখে। তাঁদের মনে পড়েছে চিরঞ্জীবীর কথা। অনেকে মন্তব্য করেছেন, আকাশের তারা হয়ে চিরঞ্জীবী দেখছেন তাঁর সন্তান ও পরিবারকে।  চিরঞ্জীবীর অনুরাগীরা সোশ্যাল মিডিয়ায়  নিজেদের ওয়ালে ছবিটি শেয়ার করে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন চিরঞ্জীবীকে।

Advertisement
Advertisement

চিরঞ্জীবীর পুত্রসন্তানের নামকরণ অনুষ্ঠান এখনও হয়নি কারণ চিরঞ্জীবীর পরিবার করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। এমনকি চিরঞ্জীবীর শিশুপুত্র কোভিড পজিটিভ হয়ে গিয়েছিল।  তবে এই মুহূর্তে সবাই করোনামুক্ত হয়ে উঠেছেন।  খুদে সারজাও করোনাকে হারিয়ে দিয়েছে। সারজা পরিবারের সূত্রে জানা গেছে , নামকরণ অনুষ্ঠান আগামী বছর হবে। তবে নামকরণ অনুষ্ঠান না হলেও চিরঞ্জীবী সারজার পরিবারের সদস্যরা একরত্তির ডাকনাম দিয়েছেন চিন্টু। কিন্তু মেঘনা এবং অনুরাগীরা চিন্টুকে ‘জুনিয়র সি’ অথবা ‘জুনিয়র চিরু’ বলেই ডাকছেন। চিরঞ্জীবীকে মেঘনা ভালোবেসে ‘চিরু’ বলতেন। তাই তাঁর চিরুর অংশকে ‘জুনিয়র চিরু’ বলে ডাকতেই পছন্দ করছেন মেঘনা।

Advertisement

গত মাসেই  মেঘনা তাঁর ও সমগ্র পরিবারের করোনা আক্রান্ত হওয়ার  খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে  নিজের স্বামী চিরঞ্জীবীকে স্মরণ করে ফ‍্যানদের বলেছিলেন, তাঁদের জন্য চিন্তা না করতে। মেঘনা জানিয়েছিলেন, তাঁদের চিকিৎসা চলছে এবং তাঁরা ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন। মেঘনা জানান, জুনিয়র ‘চিরঞ্জীবী’ অর্থাৎ তাঁদের পুত্রসন্তান ভালো আছে এবং সে সারাক্ষণ মেঘনাকে ব্যস্ত রাখছে।  মেঘনা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আশাবাদী।

Advertisement
Advertisement

চলতি বছর জুন মাসের 6 তারিখ বিখ্যাত দক্ষিণী অভিনেতা চিরঞ্জীবী সারজা শ্বাসকষ্ট এবং বুকে ব্যথা অনুভব করলে তাঁকে বেঙ্গালুরুর একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  কিন্তু চিরঞ্জীবীর শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি হতে  শুরু করে।  7ই জুন চিকিৎসায় সাড়া দেওয়া বন্ধ করে দেন চিরঞ্জীবী। ওই দিন বিকেল 3:48 নাগাদ চিকিৎসকরা 35 বছর বয়সী চিরঞ্জীবীকে মৃত ঘোষণা করেন। 8ই জুন চিরঞ্জীবীর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

2018 সালে চিরঞ্জীবীর সঙ্গে বিয়ে হয় দক্ষিণী অভিনেত্রী মেঘনা রাজের।  চিরঞ্জীবীর মৃত্যুর সময় অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন তাঁর স্ত্রী মেঘনা। চিরঞ্জীবীর মৃত্যুর পর মেঘনা ভেঙে পড়েছিলেন। একসময় নিজের গর্ভে বেড়ে ওঠা চিরঞ্জীবী ও তাঁর সন্তানের কথা ভেবে ঘুরে দাঁড়ান মেঘনা। মেঘনার ‘গোদভরাই’ অনুষ্ঠানে চিরঞ্জীবীর একটি রঙিন কাটআউটের সঙ্গে ফটো তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন মেঘনা।  তিনি বলেন, চিরঞ্জীবী সবসময় তাঁদের সঙ্গেই আছেন। চিরঞ্জীবীর মৃত্যুর চার মাস পরে 22 শে অক্টোবর জন্ম হয় জুনিয়র ‘সি’র অর্থাৎ চিরঞ্জীবী ও মেঘনার একমাত্র পুত্রসন্তানের। চিরঞ্জীবীর ভাই ধ্রুব সারজা(Dhruv sarja)সোশ্যাল মিডিয়ায় জুনিয়র ‘সি’র জন্মের খবর শেয়ার করেন। নেটিজেনরা মেঘনাকে এবং জুনিয়র ‘সি’কে অনেক ভালোবাসা ও শুভেচ্ছা জানান। সমগ্র পরিবারকে দুঃসময়ে মেঘনার আগলে রাখার শক্তি সকলের কাছে প্রশংসনীয় হয়ে উঠেছে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Meghana Raj Sarja (@megsraj)

Advertisement

Related Articles

Back to top button