দেশনিউজ

মোদি আমলেই উন্নয়নের গতি বেড়েছে, অসমে গিয়ে গর্জন অমিত শাহের

Advertisement

গুয়াহাটি: দু-দিনের উত্তর-পূর্ব সফরে গিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। আজ, শনিবার গুয়াহাটির জনসভা থেকে তিনি বলেন, অসমে উন্নয়নের গতি বাড়ছে। আসম দেশের সংস্কৃতির রত্ন। পূর্ব ভারত ছাড়া ভারতের উন্নয়ন অসম্পূর্ণ। একটা সময় ছিল যখন পুরো উত্তর-পূর্ব ভারতে কেবল সন্ত্রাস ছিল। প্রধানমন্ত্রী মোদি গত ৬ বছরে ৩০ বার উত্তর-পূর্ব ভারতে এসেছেন। তবে এমন একটি সময়ও ছিল যখন প্রধানমন্ত্রীরা মাঝে মধ্যে এখানে আসতেন।  এভাবেই অসমের মঞ্চে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

অমিত শাহ বলেন, একটা সময় আসমে আন্দোলন চলেছে। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আন্দোলন হয়েছে। কয়েকশ যুবককে হত্যা করা হয়েছে। অসমের শান্তি বিঘ্নিত হয় এবং  উন্নয়ন বন্ধ হয়। এক সময় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা এখানকার সমস্ত রাজ্যে তাদের যথেচ্ছাচার চালাতেন, যুবকদের হাতে বন্দুক তুলে দিয়েছিল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন যে প্রায় সাড়ে চার বছরে অসমের উন্নয়নে নেতৃত্ব দিয়েছেন সর্বানন্দ সোনোয়াল এবং হেমন্ত বিশ্ব শর্মা জুটি। তাদের নেতৃত্বে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। এখন পুরো উত্তর-পূর্ব ভারত উন্নয়নের বিকাশ হয়েছে। সমস্ত সন্ত্রাসী সংগঠনরা এখন মূলধারায় চলে এসেছে।

কংগ্রেসকে আক্রমণ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, ‘অসমের মানুষ ও তাদের গর্ব রক্ষা করতে কিচ্ছু করেনি। আমরা অসমের উন্নতির স্বার্থে ১৫৫ কোটি টাকা দিচ্ছি। মানুষ তাদের ঐতিহ্যের সঙ্গে যুক্ত হতে পারবে। উন্নয়নই একমাত্র রাস্তা। মানুষ নিজেদের চিন্তা বদলাচ্ছে।’

অমিত শাহ বলেন, ‘অসমের ১ লক্ষেরও বেশি নামঘর বৈষ্ণব, তাঁরা আমাদের সংস্কৃতি, শঙ্করদেবের বাণীকে এগিয়ে নিতে কাজ করছেন। এর মধ্যে আট হাজার নামহীন মানুষকে ২.৫০ – ২.৫০ লক্ষ টাকা দেওয়ার কাজ করা হয়েছে। আমি এখানে আগে এসেছি। আমরা লখিমপুর, নাগাঁও এবং তিনসুকিয়ায় নতুন মেডিকেল কলেজ তৈরি করছি। ইতিমধ্যেই রাজ্যের অধীনে ১১টি আইন কলেজ প্রতিষ্ঠার ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। অসম এ দেশকে সিজিআই হিসাবে গগৈ সাহাবকে দিয়েছে। এই আইন বিদ্যালয়গুলি আমাদের ন্যায় ব্যবস্থাকে আরও শক্তিশালী করার জন্য আরও অনেক স্কলারকে এনে দেবে।’

Tags

Related Articles

Back to top button