টলিউডবিনোদন

দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশেও তুমুল জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন টলি অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার



মধুমিতা সরকার কখনো পাখি তো কখনো ইমন হিসেবে টেলিভিশনের পর্দাতে ধরা দিয়েছিলেন। সবিনয় নিবেদন ধারাবাহিক দিয়ে টেলিভিশনে অভিষেক হয় অভিনেত্রীর। নানান ধারাবাহিকে মধুমিতা অভিনয়ের জন্য বিপুল জনপ্রিয়তা পান। তবে এখন আর ধারাবাহিক নয় সিনেমার পর্দা কাঁপাচ্ছেন মধুমিতা। তবে আজ ও বহু দর্শকের কাছে মধুমিতা সরকার পাখি হয়েই রয়ে গিয়েছেন।

ধারাবাহিকের পাখি আর সিনেমার চিনি দুইতে মধুমিতার লুক ভিন্ন। তবে আগের থেকে অভিনেত্রী এখন আরো বেশি বোল্ড আর সেক্সি। অভিনেত্রীকে একঝলক দেখার জন্য হাজার হাজার অনুরাগী অপেক্ষা করে থাকে সোশ্যাল মিডিয়াতে। আর অভিনেত্রীও নিজের সকল অনুগামীদের ভিন্ন ভিন্ন ফটোশুটের ছবি শেয়ার করে থাকেন।

শুধু কি অনুগামী! মধুমিতার ঝকঝকে চেহারা, রুপের সৌন্দর্য এবং চোখের ভঙ্গি দেখে সেলিব্রেটিরাও প্রশংসায় পঞ্চমুখ। কিছুদিন আগে মধুমিতার ছবিতে ভালবাসার চিহ্ন এঁকে দিয়েছিলেন বলিউড অভিনেতা বরুণ ধাওয়ান নিজে। এবার আর বলিউড নয় পড়শি দেশেরও মন জয় করে নিলেন মধুমিতা সরকার।

ভারতের পশ্চিম দিকে একেবারে প্রতিবেশি রাষ্ট্র হল পাকিস্তান। এবার আন্তর্জাতিক স্তরে জনপ্রিয় হয়ে উঠলেন টেলিভিশনের পাখি। মধুমিতা প্রায়শই নিজের ইন্সটাগ্রাম হ্যন্ডেলে ফটোসেশানের পাশাপাশি কিছু রিল ভিডিও শেয়ার করে থাকেন। তেমনি অভিনেত্রীর রিল ভিডিও দেখা মাত্রই ভালো লাগে পাকিস্তানি ব্লগার জাফার আলির। তারপর জাফার অভিনেত্রীর প্রোফাইলে উঁকি মেরে খুঁটিয়ে-খুঁটিয়ে দেখেন।

প্রথমে অভিনেত্রী সৌন্দর্য এবং কথা বলার ভঙ্গি দেখে ভেবেছিলেন তিনি হয়তো বলিউডের কোন বিখ্যাত তারকা। তবে অভিনেত্রী বাংলায় কথা বলছেন দেখে তিনি বুঝতে পারেন অভিনেত্রী বলিউডের নায়িকা নয়। পাকিস্তানি ব্লগার প্রশংসা করতে গিয়ে বলেছেন, ‘চোখের ইশারা, হাসি, কথা বলার ভঙ্গিতে অভিনেত্রী একেবারে অনন্য।’ নিজের ইউটিউব এ তিনি একটাই কথা জানতে চেয়েছেন, এত সুন্দরী নায়িকা কোন ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেন ?জাফরের ব্লগ দেখে খুশি অভিনেত্রী মধুমিতা সরকারও। মধুমিতার ফটোসেশানেএ জন্য মঝে মাঝে নানান কটাক্ষ শুনতে হয়। মাঝে মাঝে এর তীব্র প্রতিবাদ ও জানিয়েছেন। মধুমিতাও জাফরের ব্লগ দেখে খুশি।

Related Articles

Back to top button