নিউজরাজ্য

চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, অভিযোগের তির বিজেপি যুব মোর্চার নেতার বিরুদ্ধে

মালদা: চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারণা। হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে এক লক্ষ টাকা। এরপরেও চাকরি মেলেনি। উল্টে টাকা ফেরত চাইলে মিলেছে হুমকি। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার ইংরেজবাজারে। এক প্রতিবন্ধী যুবককে চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা নিয়ে প্রতারণা করা হয়েছে। এমনই অভিযোগ উঠেছে বিজেপি যুব মোর্চার এক নেতা বিরুদ্ধে।

সাধারণত ঘটনার তদন্তে নামার কথা ইংরেজবাজার থানার পুলিশের। কিন্তু এক্ষেত্রে নির্বিকার পুলিশ। গোটা ঘটনার লিখিত অভিযোগ দায়ের করতে গিয়ে হেনস্তার শিকার হতে হয়েছে ওই প্রতিবন্ধী যুবক ও তার পরিবারকে। অভিযোগ তো নেওয়াই হয়নি, উল্টে বিভিন্ন জটিলতা আছে এসব বলে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়েছ ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। অবশেষে পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হতে হয়েছে ওই প্রতিবন্ধী যুবককে। সেখানে গিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করতে পেরেছেন তিনি ও তার পরিবার।

জানা গিয়েছে, কালিয়াচকের লালুটোলা এলাকার বাসিন্দা ৩২ বছরের হারাধন দাস। উচ্চ শিক্ষিত হওয়া সত্বেও দীর্ঘদিন ধরে তিনি বেকার রয়েছেন। একটি পা তার সক্রিয়ভাবে কাজ করে না। এক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী শংসাপত্রও রয়েছে তার কাছে। চাকরি খুঁজতে খুঁজতে ইংরেজবাজার শহরের নিমাসরাই এলাকার বাসিন্দা বিজেপি যুব মোর্চার নেতার সঙ্গে পরিচয় হয় হারাধনের। সে গনিখান চৌধুরী কারিগরী বিশ্ববিদ্যালয় ওই প্রতিবন্ধী যুবককে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। বিনিময়ে প্রতিবন্ধী যুবকের কাছে দু লক্ষ টাকা দাবি করে ওই বিজেপি যুব মোর্চার নেতা।

এ বিষয়ে প্রতিবন্ধী যুবক জানিয়েছেন, দুই দফায় পঞ্চাশ হাজার টাকা করে মোট এক লক্ষ টাকা তিনি ওই বিজেপি যুব মোর্চার নেতাকে দিয়েছেন। কিন্তু তাতেও মেলেনি চাকরি। উল্টে হারাধনের সঙ্গে সমস্তরকম যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছিলেন ওই বিজেপি যুব মোর্চার নেতা। পরবর্তী সময়ে চাকরির আশা ছেড়ে দিয়ে সেই টাকা ফেরত চাইতে গেলে বিপত্তিতে পড়তে হয় ওই প্রতিবন্ধী যুবক ও তার পরিবারকে। বিজেপি যুব মোর্চার নেতা টাকা ফেরত দেওয়া তো দূরে থাক, হুমকি দিয়েছে বলেও অভিযোগ। পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হলেও এখনও এই ঘটনার কোনও নিষ্পত্তি হয়নি বলে জানা গিয়েছে।

Tags

Related Articles

Back to top button