আজকের দিনলিপিনিউজরাজ্য

Weather Update: ফের নিম্নচাপ, অগ্রাহায়ণের শুরুতেই দক্ষিণবঙ্গে শীতের আমেজ, রবিবার-সোমবার হতে পারে বৃষ্টি

×
Advertisement

অগ্রহায়ণের শুরুটা বেশ ভালোই কাটলো। বৃহস্পতিবার সক্কাল সক্কাল বেশ ঠান্ডা অনুভূত হতে শুরু করেছে রাজ্যবাসী। তবে সপ্তাহের মাঝে বেশ শীত অনুভব করা গেলেও, সপ্তাহান্তেই তাপমাত্রা বৃদ্ধির পূর্বাভাস দিচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। এই মুহূর্তে বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি না করলেও, নিম্নচাপের কারণে শুক্রবার থেকে তাপমাত্রা বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

Advertisement

বুধবার আলিপুর আবহাওয়া অফিস থেকে জানিয়েছে, দক্ষিণবঙ্গের উপর থেকে নিম্নচাপের প্রভাব ইতিমধ্যে কেটে গিয়েছে। এর জেরে বাধাহীনভাবে উত্তুরে হাওয়া প্রবেশ করছে। আর তার জন্যি গত দু’দিন ধরে কলকাতার তাপমাত্রা তিন ডিগ্রি কমেছে। এই কারণে বৃহস্পতিবারও পারদ নামল কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে। আগামী ২৪-৪৮ ঘণ্টায় রাজ্যে শীতের আমেজ একইভাবে বজায় থাকবে। তবে সপ্তাহের শেষের দিকে আরো এক নিম্নচাপ তৈরি হতে পারে। তার জেরে রবিবার থেকে আবারও দক্ষিণবঙ্গে বাড়তে পারে পারদ। রাজ্যের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টিও হতে পারে।

Advertisement

আজকের দিনে কলকাতা শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। সকালের দিকে আবছা এবং রাতের দিকে মূলত মেঘলা আকাশ থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। এবার রাজ্যবাসীর ধীরে ধীরে লেপ কম্বল বের করার সময় হয়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যে রাজ্যে প্রবেশ করে গিয়েছে শীতল উত্তুরে হাওয়া। এবার জাঁকিয়ে শীতের জন্য অপেক্ষা করছে গোটা বঙ্গবাসী। এবার কনকনে ঠাণ্ডা পড়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ইতিমধ্যেই আলমারি থেকে বাঙালির আলনায় জায়গা করে নিয়েছে শীতের নানান পোশাক।

তবে এই শিরশিরে ঠান্ডার অনুভূতি বেশিদিন মিলবে না। কারণ একটি নিম্নচাপের প্রভাব কেটে যাওয়ার পরেই চোখ রাঙাচ্ছে নতুন একটি নিম্নচাপ। আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছে,সপ্তাহের শেষের দিকে মধ্য বঙ্গোপসাগর এবং আরব সাগরের উপর অবস্থান করবে নতুন একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা। এই অক্ষরেখার জেরে বাধা পাবে উত্তুরে হাওয়া। রাজ্যের পরিমণ্ডলে প্রচুর পরিমাণে জলীয় বাষ্প ঢুকবে। বাড়বে রাজ্যের তাপমাত্রা। রবিবার এবং সোমবার রাজ্যের কিছু জেলাতে বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টিরও সম্ভাবনা আছে। সেইসব নিম্নচাপ, জলীয় বাষ্পের প্রভাব কেটে জাঁকিয়ে শীতের জন্য আরও এক মাস অপেক্ষা করতে হবে বঙ্গবাসীকে।

Related Articles

Back to top button