আন্তর্জাতিকনিউজ

‘এক ইঞ্চি জমিও ছেড়ে দেব না’, নয়াদিল্লির দিকে আঙুল চিনের

নয়া দিল্লি : চিন আর ভারতের সম্পর্ক প্রতিদিনই একধাপ করে অবনতির দিকে এগোচ্ছে। কখনো নতুন অস্ত্র বা কখনো বিনা অনুমতিতে অনুপ্রবেশের কারণে ভারত এবং চিনের সীমান্ত বিবাদ রোজ নতুন মোড় নিচ্ছে।  কোনোমতেই শেষ হচ্ছেনা দুপক্ষের এই আগ্রাসন নীতি। কিন্তু এসবের মাঝেই ফের আরেকবার ভারতকে নিশানা করেছে চিন। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তজেনা বৃদ্ধির জন্য নয়াদিল্লির দিকে আঙুল তুলেছে বেজিং বলেছে, এক ইঞ্চি জমিও তারা ছেড়ে দেব না। শনিবার চিনের তরফে দেওয়া বিবৃতিতে দু’দেশের সম্পর্ক আরও তলানিতে টেনে নিয়ে যাওয়ার জন্য এবং পূর্ব লাদাখে সংঘাতের জন্য সম্পূর্ণভাবে ভারতকেই দায়ী করা হয়েছে।

কিন্তু চিনের এই অপমানজনক বিবৃতিতে ছেড়ে কথা বলেনি ভারতও। এদিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, “বিশাল সংখ্যক সেনা সমাবেশ, আগ্রাসী আচরণ এবং স্থিতাবস্থা বিঘ্নিত করার মতো কার্যকলাপের মাধ্যমে শি জিনপিংয়ের দেশ দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ভঙ্গ করছে”।

গতকাল মস্কোয় চিনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ওয়েই ফেংহের সঙ্গে রাজনাথ সিংয়ের বৈঠক হয়। এই বৈঠকের আলোচনার বিষয়বস্তু ছিলো লাদাখের উত্তেজনা। ২ ঘণ্টা ২০ মিনিটের এই বৈঠক শেষে নিজের অফিসিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে ট্যুইট করেন ‘রক্ষামন্ত্রী’ রাজনাথ।

চিনা সেনাদের আগ্রাসী আচরণের জেরে ১৫ জুন রাতে পূর্ব লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায় দু-দেশের সেনাদের মধ্যে সংঘাত বেধে যায়। রক্তক্ষয়ী এই সংঘাতে ২০ ভারতীয় জওয়ান শহিদ হন। এমনকি প্যাংগং লেকের দক্ষিণ দিক চিনা সেনার দখলের উদ্দেশ্য ব্যর্থ করে ভারতীয় সেনাবাহিনী৷ ২৯ ও ৩০ অগাস্ট রাতের এই ঘটনায় আরো একবার নতুন করে বিবাদ বাধে চিন এবং ভারতের। অবশ্য এই ঘটনায় চিন সাফ জানিয়ে দেয়, ভারতীয় সেনারাই তাদের মাটিতে অনুপ্রবেশ চালিয়েছে। আবার অন্যদিকে দক্ষিণ চিন সাগরে যুদ্ধজাহাজ পাঠানো নিয়ে ভারতের সাথে চিনের বিবাদে নতুন করে সমস্যা তৈরি হয়েছে দুই দেশের মধ্যে। সব মিলিয়ে চিন আর ভারতের অশান্তির পারদ রোজ এক ধাপ করে ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছে।

Tags

Related Articles

Back to top button